ভোমরা স্থলবন্দরে পচছে সাড়ে ১৬ কোটি টাকার পেঁয়াজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:২২ | প্রকাশিত : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:২০

অনুমতিপত্র না পাওয়ায় সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দরে পচে যাচ্ছে বিপুল পেঁয়াজ। ব্যবসায়ীদের মতে, ভোমরা স্থলবন্দরে গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশের প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে পেঁয়াজ ভর্তি ১৬৫টি ট্রাক। প্রতিটি ট্রাকে রয়েছে ১০ লাখ টাকার পেঁয়াজ। দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষার কারণে এরইমধ্যে পেঁয়াজে পচন ধরেছে। কবে নাগাদ দেশে এসব পেঁয়াজ প্রবেশ করবে সে বিষয়ে এখানো কিছুই জানেন না ব্যবসায়ীরা। ফলে বিপুল ক্ষতির আশঙ্কা করছেন তারা।

ভোমরা স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীদের সংগঠন ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম জানান, গত সোমবার ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। ঘোষণার আগেই ভোমরা বন্দরের ব্যবসায়ীরা ১৬৫ ট্রাক পেঁয়াজ ভারত থেকে এলসি করেছিল। এসব পেঁয়াজের ট্রাকগুলোর ডকুমেন্ট পাস করা রয়েছে।

নাসিম আরও বলেন, ‘জেনেছি আগের এলসি করা পেঁয়াজের ট্রাকগুলো তারা ছেড়ে দেবে। এখনও পর্যন্ত ছাড়েনি, কোনো সুরহাও হয়নি। তাছাড়া ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি মূল্য নির্ধারণকারী প্রতিষ্ঠান ন্যাপেট ৩০০ ডলারের পরিবর্তে প্রতি টন পেঁয়াজের রপ্তানি মূল্য নির্ধারণ করেছে ৭০০ ডলার।’

অর্ধেক পেঁয়াজ এরইমধ্যে পচে গেছে। কিছু কিছু ট্রাক থেকে পেঁয়াজ পচা পানি ঝরতেও দেখা গেছে। সময় যত গড়াচ্ছে ততই এসব পেঁয়াজ পচে যাচ্ছে। প্রতি ট্রাকে ব্যবসায়ীদের ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা করে মোট নয় কোটি ৯০ লাখ টাকা ক্ষতির আশঙ্কা করছেন এই ব্যবসায়ী।

নাসিম বলেন, ‘আটকা পড়া প্রতি ট্রাক পেঁয়াজের মূল্য ১০ লাখ টাকা। গত সোমবার থেকে ভারতের ঘোজাডাঙা সীমান্তে পেঁয়াজ ভর্তি ট্রাকগুলো আটকে রয়েছে। এখন পেঁয়াজ নষ্ট হতে শুরু করেছে। এরইমধ্যে অর্ধেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে। তাছাড়া আগামী রবিবার বা সোমবার ট্রাকগুলো দেশে ঢুকলেও অর্ধেকের বেশি পেঁয়াজ আর খাওয়ার উপযুক্ত থাকবে না।’

আরেক ব্যবসায়ী বলেন, এমনিতেই খুব গরম পড়েছে। এরমধ্যে বৃষ্টিও হচ্ছে। যা অবস্থা তাতে দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে সব পেঁয়াজ পচে যাবে।

জানতে চাইলে ভোমরা স্থলবন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন বলেন, ভারতে কত ট্রাক পেঁয়াজ আটকা পড়েছে তার সঠিক হিসাব আমার জানা নেই। পেঁয়াজ পচনশীল দ্রব্য। পেঁয়াজের ট্রাক আটকা পড়ে থাকলে সেগুলো নষ্ট হয়ে যায়। এতে আমদানিকারকরা আর্থিকভাবে লোকসানের মুখে পড়বেন।

ঢাকাটাইমস/১৮সেপ্টেম্বর/কারই/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :