পাথরের ফাটলে বেড়ে ওঠা জংলা গাছের বাউন্ডুলে  বাচ্চার  মতো মনটা আদবের  আল  ভেঙ্গে লাফিয়ে উঠে;  যখন শুনি, তোমাদের ওখানে নাকি হররোজ ভোরে রোদ্দর  ছেলেমেয়েরা  উঠোনে উঠোনে ডাংগুলি খেলে; দুপুরের আমের ছায়ায়  চড়ুইভাতি খেলায় মেতে থাকে মিষ্টি দুষ্টু  আলো-ছায়া। গোধূলির বায়স্কোপে দেখা যায়  রামধনুর পুলের উপর মেঘের আড়ালে আবডালে  সাত ভায়ের লুকোচুরি খেলা। আর আমাদের এখানে ভোর না হতেই  আলো ফিকে আলেয়া। মধ্যাহ্ন আসে না;  পূর্বাহ্নেই আহ্নিকের যবনিকা, প্রতিটা রাত মানে রাতের রাণির জলসা, আঁধারের অনন্ত  যৌবন।   তোমাদের ওখানে নাকি বৃষ্টি-বালিকারা সই পাতা এক্কা দোক্কা  খেলে; আর আমাদের এখানে তো নোনা জলের সুনামি,   জলোচ্ছ্বাস প্লাবন,...
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :