Breaking news

  •    দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির সপ্তাহে ছয় দিন ক্লাস
  •    রোজাতেও চলবে ক্লাস
  •    স্কুল-কলেজ খুলছে ৩০ মার্চ

পর্তুগাল আ.লীগের ভার্চুয়াল সভা

ইউরোপ ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৪২

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে পর্তুগাল আ.লীগের উদ্যোগে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল আলম জসিমের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনের যৌথ পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সর্ব ইউরোপিয়ান আ.লীগের সভাপতি এম নজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সর্ব ইউরোপিয়ান আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান মুজিব।

বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু যদি ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরে না আসতেন তাহলে আ.লীগ নেতৃত্বহীন থাকত। আ.লীগের নেতৃত্বে যে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে, তা বঙ্গবন্ধুর নামেই হয়েছে। ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ ছিল আমাদের মুক্তিযুদ্ধের শ্লোগান।

বক্তারা আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু দেশে ফিরে না এলে ‘সোনার বাংলা’জাতীয় সংগীত হতো না। ‘জয় বাংলা’ শ্লোগান বর্জিত হতো এবং ধর্ম নিরপেক্ষতা, সমাজতন্ত্র, জাতীয়তাবাদ এবং গণতন্ত্রেরভিত্তিতে বাংলাদেশের পুনর্গঠন সম্ভব হতো না ।

১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীন হলেও মানুষের আত্মতৃপ্তি ছিল না। ছিল না কারো মুখে হাসি। এমনকি বঙ্গবন্ধুবিহীন বাংলাদেশে ফিরতে চাননি ভারতে মুক্তিযুদ্ধকালীন আশ্রয়রত বাংলাদেশের শরণার্থীরাও। সবার ভাবনা ছিল বঙ্গবন্ধুর বেঁচে থাকা নিয়ে। আর বেঁচে থাকলে কবে দেশে ফিরবেন সেই প্রশ্ন! ১০ জানুয়ারি ছিল বাঙালির কাছে বহু কাঙ্খিত, বহু প্রতীক্ষিত। যাকে কেন্দ্র করে আর যার আহবানে সাড়া দিয়ে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ, সেই মহান নেতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে নতুন করে উজ্জীবিত হয় জাতি।

স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে সুসংহত করতে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ওই সময়ে জরুরি ছিল বলে উল্লেখ করেন বক্তারা।

আরো মধ্যে বক্তব্য দেন- পর্তুগাল আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রাফিক উল্লাহ, সুইডেন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির, ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ কাশেম, জার্মান আওয়ামী লীগের সভাপতি বশিরুল আলম চৌধুরী সাবু, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল হক, অষ্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি খোন্দকার হাফিজুর রহমান, হল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন তপন, নরওয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাফিজুর রহমান, ইতালি আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জসিম উদ্দিন, গ্রিস আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সামাত মাতবর, ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি মোহাম্মদ আবুল কাশেম, সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক খোকন শরিফ, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মহসিন হাবিব ভূইঁয়া, ইতালি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল, সুইডেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ড: ফরহাদ আলী খাঁন, হল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুরাদ খাঁন, সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খান, ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব রহমান, ফিনল্যান্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মাইনুল ইসলাম, স্পেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক রিজভী আলম, গ্রীস আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল হাওলাদার, নরওয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, ইতালি আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিয়ার রসুল কিতন, বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ ইউরোপ চ্যাপ্টারের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজুর রহমান ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার হেদায়েতুল ইসলাম শেলী ,অষ্ট্রিয়া বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি নাহিদা সুলতানা, বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্রের সভাপতি ড. রাববীর আলম, সাংবাদিক কমরেড খন্দকার, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মিজানুর রহমান মাসুদ, পর্তুগাল আ.লীগ নেতা সেলিম উদ্দিন, ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক পর্তুগাল আওয়ামী লীগ ইমরান হোসেন ভূঁইয়া, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল ফকির, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জাকির হোসাইন, ছাত্রলীগ নেতা তানভীর আলম জনি।

উপস্থিত ছিলেন জার্মান আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি জাহেদুল ইসলাম পুলক, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক দাউদ খাঁন সোহেল, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক শফিউল আলম শফি, এন টিভির সাংবাদিক বেলাল উদ্দিন, পর্তুগাল আওয়ামী লীগের মহিলা নেত্রী সানজিদা মুনা, আবদুলাহ আল মামুনসহ ইউরোপ বিভিন্ন দেশের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।

(ঢাকাটাইমস/১৫জানুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :