ডিজিটাল স্পেসে নিরাপদ রাখতে প্রশিক্ষণ

তথ‌্যপ্রযু‌ক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫৪

করোনা মহামারির কারণে কিশোর-কিশোরীরা তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নেয়া থেকে শুরু করে বাসায় বসে নানা কাজ করতে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হচ্ছে। যেসব কিশোর-কিশোরী মূলধারার শিক্ষা কার্যক্রমের বাইরে রয়েছে তাদের জন্য অনলাইন সেফটি প্রজেক্ট ও প্রশিক্ষণের পরিধি বাড়াতে ইউনিসেফের সাথে যৌথভাবে কাজ করছে গ্রামীণফোন। ইউনিসেফের অ্যাডোলেসেন্ট ক্লাব প্রোগ্রামের মাধ্যমে এ প্রকল্পের সহায়তায় ৯০ হাজার কিশোর-কিশোরীর মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

অল্পবয়স থেকেই তরুণরা ক্রমশ ইন্টারনেটে অনেক সময় কাটাচ্ছে। ডিজিটাল বিশ্বে তারা কীভাবে নিরাপদে ও সুরক্ষিত উপায়ে বিচরণ করবে এ নিয়ে তাদের প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে তাদের সহায়তা করা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি, ডিজিটাল রিজিলিয়েন্স নিয়ে প্রচার করাও জরুরি। বর্তমানে, অনলাইনে নিরাপত্তা নিয়ে বাবা-মা, শিশু, কিশোর-কিশোরী, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে আলোচনা হওয়া জরুরি। এখানে, মূলধারার শিক্ষা ও এর বাইরে যেসব শিক্ষার্থী রয়েছে তাদেরকে যুক্ত করতে হবে। ইন্টারনেটে নিরাপদে ও সুরক্ষিতভাবে দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা পেতে শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের অনলাইন সেফটি নিয়ে প্রশিক্ষণ সহায়তা দিবে চাইল্ড অনলাইন সেফটি প্রজেক্ট।’

গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশের কিশোর-কিশোরীদের জন্য ইউনিসেফ ও বাংলাদেশ সরকার বিশেষায়িত প্রকল্পভিত্তিক নানা কর্মসূচি পরিচালনা করছে। এ প্রকল্পগুলোর লক্ষ্য হলো তরুণদের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে তাদের জীবনের মানোন্নয়ন ঘটানো। চলতি বছর, গ্রামীণফোন ও ইউনিসেফ পরিচালিত অনলাইন সেফটি প্রজেক্ট তৃতীয় বছরে পদার্পণ করেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে, সারা দেশের ১৬ শ ক্লাবের কিশোর-কিশোরীদের মাঝে অ্যাপ্লিকেশন বেজড অনলাইন প্রশিক্ষণ পরিচালনা করা হবে।

সচেতনতা তৈরির পাশাপাশি শিশুদের জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট পরিবেশ নিয়ে বোঝাপড়া বৃদ্ধিতে এবং বাবা-মা, অভিভাবক ও শিক্ষদের জানাশোনা বাড়াতে ২০১৪ সাল থেকে গ্রামীণফোন দেশজুড়ে স্কুলগুলোতে আউটরিচ প্রোগ্রাম আয়োজন করে আসছে। ২০২০ সালের মধ্যে দেশজুড়ে ৬ লাখ বাবা-মা এবং ১২ লাখ শিক্ষার্থীর কাছে পৌছানোর অঙ্গীকারে ২০১৯ সালে টেলিনর গ্রুপ এবং ইউনিসেফের সাথে যৌথভাবে কাজ শুরু করে গ্রামীণফোন।

(ঢাকাটাইমস/২৯ অক্টোবর/আরজেড/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :