চট্টগ্রামের হ্যাটট্রিক জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৮:১৮ | প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৭:০৭

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে হ্যাটট্রিক জয় পেল গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম। টুর্নামেন্টে সোমবার দিনের প্রথম ম্যাচে ফরচুন বরিশালকে ১০ রানে হারিয়েছে তারা। এর আগে বেক্সিমকো ঢাকা ও জেমকন খুলনা উভয় দলকেই ৯ উইকেটে হারিয়েছিল চট্টগ্রাম। ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে চট্টগ্রাম এখন শীর্ষে রয়েছে। অন্যদিকে, তিন ম্যাচ খেলে বরিশাল ২টিতে হেরেছে ও একটিতে জিতেছে। ২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে আছে তারা।

এদিন মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে চট্টগ্রামের দেয়া ১৫২ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪১ রান সংগ্রহ করে বরিশাল।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩২ রান করেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। চট্টগ্রামের পেসার শরিফুল ইসলাম ৪ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন। ৪ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন মোস্তাফিজ। এছাড়া মোসাদ্দেক হোসেন ১টি ও সৌম্য সরকার ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

বরিশাল ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ২৩ রানে প্রথম উইকেট হারায়। বোলার শরিফুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ওপেনার মিরাজ (১৩)। এরপর পারভেজ হোসেন ইমনকে সঙ্গে নিয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন তামিম। দলীয় ৫৯ রানে মোস্তাফিজের বলে উইকেটরক্ষের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইমন (১১)।

১১তম ওভারে মোসাদ্দেকের বলে লং অফে সৈকত আলীর হাতে ক্যাচ হন তামিম। তামিম ফিরলেও তৌহিদ হৃদয়-আফিফ হোসেন জুটি ভালো কিছুর সম্ভাবনা জাগাচ্ছিলেন। কিন্তু ১০ বলে ১৭ করে হৃদয় ফিরে গেলে আশার আলো ধীরে ধীরে ফিকে হতে থাকে বরিশালের। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে বরিশাল। পরের ব্যাটসম্যানরা দলের জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ভূমিকা রাখতে পারেননি।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন এবং সৈকত আলীর ব্যাটে চড়ে ১৫১ রান সংগ্রহ করে চট্টগ্রাম। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৫ রান করেন লিটন। আগের দুই ম্যাচে উদ্বোধনী জুটিতে দলকে দারুণ ‍শুরু এনে দেওয়া লিটন এবং সৌম্য এই ম্যাচে বড় জুটি গড়তে ব্যর্থ হয়েছেন। দলীয় ২২ রানে আবু জায়েদের বলে ব্যক্তিগত ৫ রান করে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন সৌম্য।

আগের দুই ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও ব্যাট হাতে রান পান লিটন। দলের অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুনকে নিয়ে দলীয় সংগ্রহ বাড়াতে থাকেন লিটন। মিথুন অল্পতেই থেমেছেন। সুমনের বলে ব্যক্তিগত ১৭ রান করে আউট হন তিনি।

ব্যাট হাতে দারুণ ছন্দে থাকা লিটনও থেমে যান ব্যক্তিগত ৩৫ রান করে। মেহেদী মিরাজের বলে কামরুল ইসলামের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি। লিটনের বিদায়ের পর চট্টগ্রামের হাল ধরার চেষ্টা করেন শামসুর রহমান। তবে বড় হয়নি শামসুর-মোসাদ্দেক জুটি। দলীয় ৯৬ রানে কামরুলের বলে থামে এই জুটি। সাজঘরে ফেরার আগে ২৮ বলে ২৬ রান করেন শামসুর।

বরিশালের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে রানের গতি কিছুটা কমে চট্টগ্রামের। শেষ দিকে আগ্রাসী ব্যাট করেন সৈকত আলী। আবু জায়েদের করা ১৯তম ওভারে তিনটি ছক্কা হাঁকান সৈকত। শেষ পর্যন্ত ১৫১ রানে ইনিংস থামে চট্টগ্রামের। ১১ বলে ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন সৈকত আলী। বরিশালের হয়ে সর্বোচ্চ ২টি উইকেট নেন আবু জায়েদ রাহি। এছাড়া তাসকিন আহমেদ ১টি, সুমন খান ১টি, মেহেদী হাসান মিরাজ ১টি ও কামরুল ইসলাম রাব্বী ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ১০ রানে জয়ী গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম।

গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম: ১৫১/৭ (২০ ওভার)

(লিটন ৩৫, সৌম্য ৫, মিথুন ১৭, শামসুর ২৬, মোসাদ্দেক ২৮, জিয়াউর ২, সৈকত আলী ২৭*, নাহিদুল ৮*; সুমন ১/৩১, তাসকিন ১/৩০, আবু জায়েদ ২/৪২, কামরুল ১/২৩, মিরাজ ১/২৫)।

ফরচুন বরিশাল: ১৪১/৮ (২০ ওভার)

(মিরাজ ১৩, তামিম ৩২, পারভেজ ১১, আফিফ ২৪, হৃদয় ১৭, শুক্কুর ২, অঙ্কন ১০, তাসকিন ২, সুমন ১৫*, কামরুল ২*; নাহিদুল ০/২৬, শরিফুল ৩/২৭, মোসাদ্দেক ১/১৭, সঞ্জিত ০/২০, মোস্তাফিজ ৩/২৩, সৌম্য ১/২০)।

ম্যাচ সেরা: শরিফুল ইসলাম (গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম)।

(ঢাকাটাইমস/৩০ নভেম্বর/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :