হাওরে ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ, বিক্ষোভ

নেত্রকোণা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০২ মে ২০১৭, ২০:০৯

নেত্রকোণার খালিয়াজুরীতে ত্রাণের চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ করে  মানববন্ধন কর্মসূচি পালনসহ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে খোদ সরকারি দলের নেতা-কর্মীসহ বুক্তভোগীরা।

উপজেলার খালিয়াজুরি ইউনিয়নসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে সোমবার বিতরণ করা ত্রাণের চালে ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ ওঠে। এছাড়াও আগাম বন্যায় উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের সংখ্যা ২৫ হাজার হলেও সহায়তার জন্যে ১০ হাজার কৃষককে ভিজিএফ কার্ড দেয়া হয়েছে। বাকি ১৫ হাজার কৃষককে ভিজিএফ কার্ড দেয়া হয়নি বলে দাবি করে আসছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা। 

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা সদরে অন্তত এক হাজার মানুষ এই কর্মসূচি পালন করে ত্রাণের চাল চুরির সাথে জড়িতদের বিচারের দাবি জানিয়েছেন। এ সময় বিক্ষোভকারীরা শতভাগ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ভিজিএফ কার্ড দেয়ার দাবিও জানান।

খালিয়াজুরী সদরে বিক্ষোভ মিছিল শেষে ডাকবাংলোর সামনের সড়কে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন কর্মসূচি চলার সময় বক্তব্য দেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জব্বার, জেলা পরিষদ সদস্য আবু ইসহাক, স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি নিহারেন্দু দেব রায়, কৃষক মনির হোসেনসহ অন্যরা।

খালিয়াজুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জব্বার বলেন, খালিয়াজুরী উপজেলায় ত্রাণে বিতরণে অনিয়ম হচ্ছে। সোমবার খালিয়াজুরী ইউনিয়নে দেয়া ত্রাণের প্রত্যেক ভিজিএফ কার্ডধারীকে দুই থেকে পাঁচ কেজি করে চাল কম দিয়েছে। ত্রাণের এই চাল চুরির সাথে ইউনিয়নটির চেয়ারম্যান ছানোয়ারুজ্জামান জোসেফসহ আরো অনেকেই  জড়িত। ক্ষুধার্ত এই মানুষগুলোর মুখের খাবার কেড়ে নেয়া এই  চাল চোরদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। যাতে আর কেউ এ ধরনের অপকর্ম করতে সাহস না পায়। তিনি বলেন, উপজেলায় আরও ১৫ হাজার কৃষককে ভিজিএফকার্ডের আওতায় আনতে হবে।

খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তোফায়েল আহমেদ জানান, সোমবার উপজেলা ছয়টি ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্ত ১০ হাজার কৃষক পরিবারের মধ্যে ভিজিএফ এর মাধ্যমে প্রত্যেক পরিবারকে তিন কেজি চাল ও পাঁচশ টাকা করে দেয়া হয়। পাহাড়ি ফল আর বৃষ্টির পানিতে আগাম বন্যায় ফসল রক্ষা বাঁধ ভেঙে খালিয়াজুরীতে ১৭ হাজার ৭০ হেক্টর জমির বোরো ফসল তলিয়ে গেছে। এতে ২৫ হাজার কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

সোমবার খালিয়াজুরী ইউনিয়ন পরিষদে ত্রাণের চাল দেয়ার সময় ওজনে কম দেয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন কৃষকেরা। তারা সেসময় বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে থাকলে কবর পেয়ে উপজেলা সদরে থাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী হাকিম আতিকুল ইসলাম ও উপজেলা ত্রান কর্মকর্তা (পিআইও) সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তারা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

উপজেলা ত্রাণ কর্মকর্তা (পিআইও) সাইফুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে জানান, কয়েকজনকে কয়েক কেজি করে চাল কম দেয়া হয়েছিল। পরে পাওনা অনুযায়ী পুরো চাল তাদেরকে দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী হাকিম আতিকুল ইসলাম জানান, ১০/১৫ জন কৃষককে ওজনে কম চাল দেয়া হয়েছিল দেখতে পাই। পরে তাদেরকে ওজন ঠিক করে চাল দেয়া হয়েছে। ওজনে কম দেয়ার বিষয়ে বলেন, কেউ লিখিত অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ত্রাণের চাল চুরির অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে খালিয়াজুরী ইউনিয়ন পরিষদ চেযারম্যান ছানোয়ারুজ্জামান জোসেফ ঢাকাটাইমসকে বলেন, আমাকে একটি চক্র ফাঁসাতে এই মিথ্যা অভিযোগ করছে। ত্রাণের কোনো চাল চুরির সাথে আমি জড়িত নই।   

খালিয়াজুরী ইউনিয়ন পরিষদ চেযারম্যান ছানোয়ারুজ্জামান জোসেফের বিরুদ্ধে ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতির অভিযোগ এনে  মঙ্গলবার স্থানীয় কৃষকেরা জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

 খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তোফায়েল আহমেদ বলেন, চেয়ারম্যান ছানোয়ারুজ্জামান জোসেফের বিরুদ্ধে ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতির বিষয়ে জেলা প্রশাসকের বরাবরে কৃষকেরা একটি অভিযোগ আমার কাছে দিয়েছেন। অভিযোগটিতে স্তানীয় আওয়ামী লীগ নেতারাসহ বেশকয়েকজন কৃষক স্বাক্ষর করেছেন। অভিযোগটি আমি জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠিয়ে দেব।

(ঢাকাটাইমস/০২মে/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত