স্বামীসহ পাপিয়ার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২০, ২২:২৩ | প্রকাশিত : ০৪ আগস্ট ২০২০, ২২:২১

প্রায় সোয়া ছয় কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের উপপরিচালক শাহীন আরা মমতাজ বাদী হয়ে মঙ্গলবার সংস্থাটির ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাটি করেন।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা (পরিচালক) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলায় পাপিয়ার বিরুদ্ধে মোট ছয় কোটি ২৪ লাখ ১৮ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। এ অভিযোগ অনুসন্ধানে গত ২০ জুলাই বিশেষ ব্যবস্থায় পাপিয়া ও তার স্বামী মো. মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরীকে কাশিমপুর জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১৯ সালের ১২ অক্টোবর থেকে চলতি বছরের ২২ ফ্রেব্রুয়ারি পর্যন্ত ওয়েস্টিন হোটেলের ২৫টি রুমে অবস্থান করে রুম-নাইট, রেস্টুরেন্ট (খাবার), রেস্টুরেন্ট (মদ),স্পা, লন্ড্রি, মিনি বার ফুড, মিনি বার বাবদ মোট তিন কোটি ২৩ লাখ ২৪ হাজার ৭৬১ টাকার বিল ক্যাশে পরিশোধ করেন পাপিয়া। ওই সময়ে ওয়েস্টিন হোটেলে থাকা অবস্থায় প্রায় ৪০ লাখ টাকার শপিং করেন। যার কোনো বৈধ উৎস দেখাতে পারেনি তিনি।

এছাড়া ২০১৫ সালের এপ্রিল থেকে ২০২০ সালের এপ্রিল পর্যন্ত পাঁচ বছরে বাসা ভাড়াবাবদ ৩০ লাখ টাকা, গাড়ির ব্যবসায় বিনিয়োগকৃত এক কোটি টাকা এবং নরসিংদীতে কেএমসি কার ওয়াশ সলিউশানে বিনিয়োগকৃত ২০ লাখ টাকা, বিভিন্ন ব্যাংকে তার ও তার স্বামীর নামে জমাকৃত ৩০ লাখ ৫২ হাজার ৯৫৮ টাকারও কোনো বৈধ উৎস পাওয়া যায়নি দুদকের অনুসন্ধানে।

অন্যদিকে র‌্যাবের অভিযানে তার বাসা থেকে ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা এবং সুমনের নামে হোন্ডা সিভিএ ২০১২ মডেলের ২২ লাখ টাকার গাড়ি উদ্ধার করা হয়। এরও কোনো বৈধ উৎস মেলেনি দুদকের অনুসন্ধানে।

এভাবে মোট ছয় কোটি ২৪ লাখ ১৮ হাজার ৭১৮ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ পাওয়া যায়, যা আয়ের উৎসের স্বপক্ষে কোনোরূপ দালিলিক প্রমাণ না পাওয়ায় পাপিয়া এবং তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমনের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়।

চলতি বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জাল টাকা বহন ও অবৈধ টাকা পাচারের অভিযোগে পাপিয়াসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। অপর দুজন হলেন, শেখ তায়্যিবা ও তার স্বামী সাব্বির খন্দকার।

গ্রেপ্তারের পর যুব মহিলা লীগের এই নেত্রীর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পাওয়া যায়। পরে তাকে যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কার করে সংগঠনটি।

(ঢাকাটাইমস/০৪আগস্ট/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

জাতীয় এর সর্বশেষ

স্পিকারের সঙ্গে সিপিএ সেক্রেটারি জেনারেলের সাক্ষাৎ

বাংলাদেশি গ্লোবের ভ্যাকসিন করোনা প্রতিরোধে সক্ষম: মার্কিন জার্নাল

সেপ্টেম্বরে বিজিবির অভিযানে সাড়ে ৭৫ কোটি টাকার চোরাচালান-মাদকদ্রব্য জব্দ

বৈদেশিক কর্মসংস্থানে অনগ্রসর জেলাগুলোকে অগ্রাধিকার: প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী

মোটরযানে ঝুঁকি বিমা না থাকলেও মামলা না করার নির্দেশনা

তাকসিমই থাকলেন ওয়াসার এমডি

মানুষ যখনই বিপদে পড়ে পাশে দাঁড়িয়েছে পুলিশ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: ৬ আসামির ডিএনএ সংগ্রহ

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাবে: অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রপতি

স্বল্পমূল্যের প্লট দেখিয়ে ৩০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে নাসিম রিয়েল!

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :