হেফাজতের ২৩ মামলার তদন্তের দায়িত্বে সিআইডি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০২১, ২০:২৮
ফাইল ছবি

সাম্প্রতিক সহিংসতার ঘটনাসহ হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় দায়ের করা ২৩টি মামলার তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ- সিআইডি।

সোমবার সিআইডির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান ঢাকা টাইমসকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, মুন্সীগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ ও চট্টগ্রামের একাধিক মামলার তদন্ত করবে সিআইডি। তিনি জানান, মামলাগুলোর মধ্যে ২০১৬ সালের পাঁচটি মামলা আর সাম্প্রতিক সময়ের ১৮টি।

সিআইডি প্রধান বলেন, ‘আমরা আশা করছি খুব দ্রুততম সময়ের মধ্যেই তদন্ত শেষ করব এবং যারা এখনো আইনের আওতায় আসেনি তাদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করব।’

মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘হামলা, ভাঙচুর ও সহিংসতার ঘটনায় যারা উপস্থিত ছিল, মদদ দিয়েছে, উসকানি দিয়েছে, জ্বালাও-পোড়াও করেছে তাদের ফুটেজ ফরেনসিক করা হবে। ফরেনসিক করে যাদের পাওয়া যাবে তাদের সবাইকেই আমরা আইনের আওতায় আনব।’

ইতিমধ্যে যেসব হেফাজত নেতা গ্রেপ্তার হয়েছেন প্রয়োজনে তাদেরও সিআইডি জিজ্ঞাসাবাদ করবে বলে জানান সংস্থাটির প্রধান।

২০১০ সালে প্রতিষ্ঠিত কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের উত্থান ঘটে মূলত ২০১৩ সালে। শাহবাগে গড়ে ওঠা গণজাগরণ মঞ্চের বিরোধিতা করে প্রথম ব্যাপক আলোচনায় আসে সংগঠনটি। তবে ওই বছরের ৫ মে শাপলা চত্বরে অবস্থানকে কেন্দ্র করে দিনভর নাশকতা এবং গভীর রাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানের পর সংগঠনটি অনেকটা চুপসে যায়।

পরবর্তী সময়ে সরকারের সঙ্গে সংগঠনটির নেতাদের সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। কওমি সনদের সরকারি স্বীকৃতি দেয় আওয়ামী লীগ সরকার। হেফাজতের আমির আল্লামা আহমদ শফীর উপস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেয়া হয় ‘কওমি জননী’ উপাধী। তবে গত মার্চে নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে ঘিরে সংগঠনটি আবার আলোচনায় আসে। সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে কয়েক দিনের সংঘর্ষে কমপক্ষে ১২ জন নিহত হন, আহত হন সহস্রাধিক। এ সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ভাঙচুর ও সহিংসতার ঘটনাও ঘটে।

এসব ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ইতিমধ্যে হেফাজতের আলোচিত নেতা মাওলানা মামুনুল হকসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার আতঙ্কে রয়েছেন হেফাজতের বিভিন্ন স্তরের নেতারা।

(ঢাকাটাইমস/১৯এপ্রিল/এসএস/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :