কিশোরগঞ্জের হাওরকে ‘দুর্গত এলাকা’ ঘোষণার দাবি

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৩ মে ২০১৭, ১২:২৪

কিশোরগঞ্জের ইটনা, মিঠামইন, অষ্টগ্রামসহ জেলার সমগ্র হাওর অঞ্চলকে দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ইটনা সমিতিসহ ছয়টি সংগঠন।

বুধবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী জেলা শহরের রঙমহল সিনেমা হলের সামনে স্টেশন রোডে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের কৃষিঋণ, এনজিও ঋণ মওকুফ, নতুন করে কৃষিঋণ প্রদানসহ পুনর্বাসনের দাবি জানান। পাশাপাশি তারা পর্যাপ্ত খাদ্য ও ওষুধ সরবরাহের দাবি জানান। এছাড়াও গৃহপালিত পশু রক্ষাসহ এদের খাদ্যের ব্যবস্থা করার জন্য বক্তারা সরকারের কাছে আহ্বান জানান।

এতে বক্তব্য দেন হাওরাঞ্চলবাসী কিশোরগঞ্জ এর প্রধান সমন্বয়ক ও ইটনা সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মেহের উদ্দিন, গণতন্ত্রী পার্টি জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন, কিশোরগঞ্জ টিটার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যক্ষ সাজেদা ইয়াসমিন, হাওরাঞ্চলবাসী কিশোরগঞ্জ এর সদস্য সচিব রুহুল আমীন, ইটনা সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আঃ মালেক ভুইয়া, সহসভাপতি গিয়াস উদ্দিন খান মিল্কী, মিঠামইন কল্যাণ সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ফজলুর রহমান, জেলা ওয়ার্কাস পার্টির সদস্য মজনু ভুইয়া, ভোরের আলো সাহিত্য আসরের প্রতিষ্ঠাতা রেজাউল হাবীব রেজা, হাওরাঞ্চলবাসী মিঠামইনের সমন্বয়ক এম এ হালিম তালুকদার, কিশোরগঞ্জ সামাজিক সাংস্কৃতিক পরিষদের আহ্বায়ক ও সমন্বয়ক প্রদীপ কুমার বর্মণ।

এ সময় ভোরের আলো সাহিত্য আসরের পরিচালক সাংবাদিক আমিনুল হক সাদী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলী রেজা সুমন, সদস্য শফিক কবীর ও ফারুকুজ্জাসান ফারুক প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে সরকারি চাকরিজীবী কল্যাণ ফোরাম, ভোরের আলো সাহিত্য আসর, মিঠামইন উপজেলা কল্যাণ সমিতি, কিশোরগঞ্জ হাওরাঞ্চলবাসী, কেন্দুয়া সমিতি, কটিয়াদী সমিতি ও তাড়াইল সমিতির সদস্যরা উপস্থিত হয়ে সংহতি প্রকাশ করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে লিখিত দুটি স্মারকলিপি জেলা প্রশাসকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/০৩মে/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত