ছাত্রদল সভাপতি প্রার্থী আ. লীগ পরিবারের হলে সমস্যা কী: ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:৪৬
ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তানের ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতির প্রার্থী হওয়া নিয়ে ব্যাপক আলোচনার মধ্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলছেন, এতে কোনো সমস্যা নেই।

ছাত্রদলের নেতৃত্ব নির্বাচনের সম্মেলনের দুই দিন আগে নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘গণতান্ত্রিক দেশে বাবা-ছেলে আলাদা আলাদা দলের রাজনীতি করতেই পারে।’
আগামী শনিবার ছাত্রদলের বহুল আলোচিত সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এতে সভাপতি প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় আছেন কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ। তার গোটা পরিবার আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত। আর বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনের দলীয় কার্ালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়েও প্রশ্নের মুখে পড়েন ফখরুল।

শ্রাবণের বাবা কাজী রফিকুল ইসলাম যশোরের কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। তার এক ভাই কাজী মুস্তাফিজুর রহমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। অপর ভাই কাজী মুজাহিদুল ইসলাম পান্না উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক। আর এক ভাই কাজী আজাহারুল ইসলাম মানিক উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক।

এরই মধ্যে কাজী রফিক সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছেন, সন্তানের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, ‘কাজী রওনকুল আমার সন্তান হলেও রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণে আমাদের পরিবারের কারও সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। কোনো যোগাযোগ নেই। নিজের আয়ে সে চলে। পারিবারিক বিয়ে বা কোনো অনুষ্ঠানাদিতেও আসে না। আমরাও তার কাছে যাই না। কিন্তু আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের লোকজন বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার চালিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লোটার চেষ্টা করছে।’

ফখরুল বলেন, ‘গণতান্ত্রিক দেশে থাকতেই পারে যে বাবা একটা রাজনীতি করবেন, আমি একটা রাজনীতি করব। আমার ছাত্রজীবনে আমার বাবা একটা রাজনীতি করতেন আমি একটা করতাম। কখনো কোনো সমস্যা হয়নি। না বাবার হয়েছে, না আমার হয়েছে। এখনতো ছেলে বিপদে পড়ে যাচ্ছে, তার বাবা যদি আওয়ামী লীগ করে থাকে, তাহলে তার ছেলে বিএনপি বা ছাত্রদল করলে তার বিপদ হবে। আবার বাবার বিপদ হবে, তার ছেলে ছাত্রদল করলে। এখন এমন অবস্থা হয়েছে যে ভিন্নমত পোষণ করা যাবে না।’

শনিবার ছাত্রদলের সম্মেলনে ভোট দিয়ে সারাদেশের কাউন্সিলররা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করবেন। কয়েক দশক পরে নির্বাচনের মাধ্যমে হতে যাওয়া সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী আছেন আট জন, আর সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ১৯ জন। 

(ঢাকাটাইমস/১২সেপ্টেম্বর/বিইউ/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :