বাইডেনের শপথের আগেই ওয়াশিংটন ছাড়বেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১০:১০

নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথের (২০ জানুয়ারি) আগেই যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ছেড়ে চলে যাবেন বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

খবরে বলা হয়, ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র শুক্রবার জানান বাইডেনের শপথের দিন সকালেই ওয়াশিংটন ছাড়বেন ট্রাম্প। ট্রাম্প তার বিদায়ী অনুষ্ঠান ওয়াশিংটনের বাইরের ঘাঁটি জয়েন্ট বেইজ অ্যান্ড্রুজে করার পরিকল্পনা করেছেন। বিদায়ী অনুষ্ঠান শেষে ট্রাম্প ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের পাম বিচে মার-এ-লাগো রিসোর্টে পরবর্তী জীবন শুরু করবেন।

তবে এর আগেই জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানে থাকবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি নির্বাচনের শুরু থেকেই ভোট কারচুপির অভিযোগ এনেছেন। এ বিষয়ে সবকটি মামলা খারিজ করে দিয়েছে আদালত। অভিযোগের বিরুদ্ধে বড় কোনো প্রমাণ দেখাতে না পারলেও এখন পর্যন্ত তিনি তার অবস্থান থেকে সরে আসেননি।

গত ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটলে হামলায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে ট্রাম্প অভিশংসিত করে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে ট্রাম্পই একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি দুইবার অভিশংসিত হয়েছেন। ক্যাপিটলে হামলায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে এ পদক্ষেপ নেয় প্রতিনিধি পরিষদ। ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে ২০২০ সালেও একবার অভিশংসিত হয়েছিলেন ট্রাম্প।

ট্রাম্পের ভাগ্য এখন ঝুলে আছে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটের হাতে। প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসনের ভোটাভুটি সম্পন্ন হওয়ার পর তা অনুমোদন দিয়ে সিনেটে পাঠাতে হয়। বিষয়টি সিনেটে পৌঁছানোর পরপরই সেখানে তা সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায়।

এই ধারা অনুসরণ করে ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদ শিগগিরি সিনেটে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাঠাবে। সিনেট অধিবেশন ডাকা হলে ট্রাম্পের বিচার হতে বাধ্য, কোনো বিকল্প নেই।

এই মুহূর্তে সিনেটের অধিবেশন আগামী ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত মূলতবি রয়েছে। সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা মিচ মাককোনেলের দপ্তর থেকে বুধবার জানানো হয়েছে যে, জরুরি অধিবেশন ডাকার ব্যাপারে সিনেটের সংখ্যালঘু দলের নেতা চাক শুমারের একটি অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। চাক শুমার অনুরোধ করেছিলেন যে, অভিশংসনের বিষয়টি ‘জরুরি’ বিবেচনা করে যেন সিনেট নেতা মিচ ম্যাককোনেল অধিবেশন আহ্বান করেন।

প্রতিনিধি পরিষদে ভোটাভুটি হওয়ার পর এক বিবৃতিতে মিচ ম্যাককোনেল জানিয়েছেন, বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত সিনেট কোনো ব্যবস্থা নেবে না। ফলে ট্রাম্প হয়ত তার ক্ষমতার শেষ দিনগুলো হোয়াইট হাউজেই কাটাতে পারবেন।

তবে তার জন্য দুঃসংবাদ হচ্ছে- সিনেটে একবার অভিশংসনের প্রস্তাব পৌঁছালে তা নিয়ে ভোটাভুটি করতে বাধ্য। ফলে ট্রাম্প ক্ষমতা থেকে বিদায় নেয়ার পরও তিনি সিনেটে অভিশংসনে মুখে পড়বেন। যদি সিনেটে অভিশংসিত হন তাহলে তিনি আর কখনো প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রার্থী হতে পারবেন না। ট্রাম্প বেশ কয়েকবার বলেছেন, ২০২৪ সালে যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে তাতে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

ঢাকা টাইমস/১৬জানুয়ারি/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :