অর্থের অভাবে শিশু আলিফের চিকিৎসা বন্ধের উপক্রম

আজহারুল হক, ময়মনসিংহ
 | প্রকাশিত : ০৪ মার্চ ২০২১, ১৪:৪৭

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার মাইজহাটি গ্রামের মোহাম্মদ আলীর পাঁচ বছরের শিশুপুত্র আলিফ নেফ্রোটিক সিনড্রোম নামে এক জটিল রোগে আক্রান্ত। তাকে বাঁচাতে সাড়ে তিন বছর ধরে চিকিৎসা করাতে গিয়ে বাবা মোহাম্মদ আলী নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন।

দরিদ্র পরিবারের এই শিশু ঢাকার শের-ই-বাংলা জাতীয় কিডনি হাসপাতালের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের তিন নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন আছে। শিশুটির বাবা ইলেকট্রিশিয়ান মোহাম্মদ আলী ও মা হাফিজা খাতুন দীর্ঘ সময় ধরে একনাগাড়ে ছেলের চিকিৎসার খরচ জোগাতে গিয়ে শেষ সম্বল ৫০ শতাংশ জমি বিক্রি করে ফেলেন। এরই মধ্যে জমি বিক্রির টাকাও শেষ হয়ে গেছে। এরপর শুরু হওয়া ধারদেনার পথও এখন বন্ধ। আলিফের বাবা-মায়ের মনে এখন ভয় জেগেছে, অর্থের অভাবে ছেলের চিকিৎসা শেষ পর্যন্ত তারা চালিয়ে যেতে পারবেন কি না। ছেলেকে বাঁচিয়ে রাখতে যে অনেক অর্থের দরকার।

চিকিৎসকরা বলছেন, ধারাবাহিক চিকিৎসায় এই রোগ ভালো হওয়ার সম্ভাবনা আছে। তবে ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত চিকিৎসা অব্যাহত রাখতে হবে। কিন্তু, এ দরিদ্র বাবার পক্ষে ছেলের চিকিৎসা ব্যয় চালিয়ে যাওয়া এখন আর সম্ভব হয়ে উঠছে না।

বাবা মোহাম্মদ আলী জানান, প্রতিদিন অন্তত ৫০০ টাকার ওষুধ খেলে আলিফের শরীর অনেকটা ভালো থাকে।

এ অবস্থায় শিশুটিকে বাঁচাতে তার পরিবার হৃদয়বান মানুষের সহযোগিতা চায়। ছোট্ট আলিফের চিকিৎসার জন্য সাহায্য পাঠাতে পারেন ০১৬৪২৪৪৮২১৯ (মোহাম্মদ আলী) এই বিকাশ নম্বরে।

(ঢাকাটাইমস/৪মার্চ/পিএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :