মানিকগঞ্জ হাসপাতালে অনিয়ম: অবশেষে সেই কর্মচারী বদলি

মঞ্জুর রহমান, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৬, ২০:৩৪ | প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর ২০১৬, ১৭:২৫

দুর্নীতি ও অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ার পর মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালের প্রধান অফিস সহকারী আব্দুল করিমকে বদলি করা হয়েছে। তার স্থানে প্রেষণে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ক্যাশিয়ার দিলীপ কুমার দাসকে। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) লুৎফর রহমান।

সদর হাসপাতালে আব্দুল করিম কর্মরত থাকা অবস্থায় হাসপাতালের টাইলস নিজ বাড়িতে লাগানো, ঊধ্বর্তন চাকুরেদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার, কর্মচারীদের চাঁদা দিতে বাধ্য করাসহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে ঢাকাটাইমসে গত ২৮ অক্টোবর ‘‘চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর দাপটে ‘অসহায়’ অন্যরা’’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। 

খবরটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নজরে আসলে গত ২ নভেম্বর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ মামুনকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

এই কমিটির সদস্য সচিব করা হয় সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার লুৎফর রহমানকে। সদস্য করা হয় সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার উত্তম কুমার সরকারকেও। সিভিল সার্জন ইমরান আলীর কাছে এই কমিটি প্রতিবেদন জমা দিলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে দৌলতপুর হাসপাতালে বদলি করেন। সিভিল সার্জন কাম তত্ত্বাবধায়ক কার্যালয় থেকে ১৭ নভেম্বর তাকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। 

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার  পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ মামুন ঢাকা টাইমসকে বলেন, আব্দুল করিমের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ কী ধরনের ব্যবস্থা নেবে সেটা তাদের ব্যাপার। এ বিষয়ে আমার কিছু বলার নেই।’

মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার লুৎফর রহমান ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘আব্দুল করিম সদর হাসপাতালে প্রেষণে কর্মরত ছিলেন। সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে তার প্রেষণ বাতিল করা হয়েছে।’ 

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সহকারী আব্দুল করিমের মুঠোফোনে একাধিক বার ফোন করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তিনি ফোনটি বন্ধ রেখেছেন।

ঢাকাটাইমস/১৯নভেম্বর/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত