সিলেট-৫ আসনে আ.লীগ, বিএনপি ও জাপার নির্বাচনী তৎপরতা

সিলেট প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৫ জুন ২০১৭, ১১:৩০ | প্রকাশিত : ০৫ জুন ২০১৭, ০৮:৪৭

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সিলেট-৫ আসনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নির্বাচনী মাঠে কাজ শুরু করেছেন। গত নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা সেলিম উদ্দিন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেও এবার মহাজোট না থাকলে পাল্টে যাবে সব হিসেব-নিকেশ।

জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা নিয়ে গঠিত সিলেট-৫ আসনে এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী একাধিক প্রার্থী মাঠে কাজ করছেন। দশম নির্বাচনে মনোনয়ন পেলেও দলের হাইকমান্ডের নির্দেশে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে মহাজোটের প্রার্থীকে আসন ছেড়ে দেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন।

দলীয় সূত্রমতে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি মাসুক উদ্দিন  আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন, এটা প্রায় নিশ্চিত। তবে এ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হতে চেষ্টা চালাচ্ছেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আহমদ আল কবির। দুজনেই নির্বাচনী এলাকার মানুষের সাথে সম্পর্ক নিবিড় রাখার চেষ্টা করছেন।

নবম নির্বাচনে চারদলীয় জোটের প্রার্থী জামায়াত নেতা মাওলানা ফরিদ উদ্দিনকে হারিয়ে সাংসদ হন নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামীলীগের প্রার্থী হাফিজ আহমদ মজুমদার। সে নির্বাচনে হাফিজ মজুমদার ১ লাখ ৯৫৭ ভোট পান। আর মাওলানা ফরিদ পান ৭৭ হাজার ৬৪৩ ভোট। এর আগেও হাফিজ মজুমদার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন। কিন্তু দশম নির্বাচনে ব্যক্তিগত কারন দেখিয়ে আর আওয়ামীলীগের প্রার্থী হননি হাফিজ।

এর আগে বিভিন্ন ইসলামী দলের শক্ত অবস্থানের কারণে জামায়াতের মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী ২০০১ সালে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। নবম নির্বাচনেও শক্ত প্রতিদ্বদ্বী ছিলেন তিনি। এবারও ফরিদ প্রার্থী হবেন বলে গুঞ্জন রয়েছে।

জোটের প্রার্থীকে ছেড়ে দেয়ায় গত দুটি নির্বাচনে এ আসনে প্রার্থী দেয়নি বিএনপি। কিন্তু একদশ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে পাল্টে যেতে পারে হিসেব।  জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাহির চৌধুরী, জকিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আশিক চৌধুরী মনোনয়ন পেতে জোর চেষ্টা করছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া কানাইঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি মামুনুর রশীদও বিএনপির মনোনয়ন পেতে মাঠে কাজ করছেন। এ আসনে আঞ্জুমানে আল-ইসলাহ সভাপতি মাওলানা হুসাম উদ্দিন চৌধুরীও নির্বাচন করতে পারেন।

জাতীয় পার্টি থেকে পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা বর্তমান সাংসদ ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ সেলিম উদ্দিন আবারো নির্বাচনে অংশ নেবেন। এছাড়া জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করতে তৎপর রয়েছেন পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাব্বীর আহমদ ও পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল মতিন চৌধুরী।

ঢাকাটাইমস/জুন ৫/প্রতিনিধি/এসএএফ/

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত