বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

ভোলা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৭, ১৯:৩৭

ভোলায় মাদ্রাসাশিক্ষকের বিরুদ্ধে নয় বছরের ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ জনতা। শনিবার সকালে শহরের মহাজনপট্টি বাইতুল মুয়াজ্জাম ক্যাডেট মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক মো. সাইফুল ইসলামকে থানায় নিয়ে যায়। অভিযুক্ত সাইফুল ইসলাম ওই মাদ্রাসার নুরানি বিভাগের শিক্ষক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে শহরের মহাজনপট্টি বায়তুল মুয়াজ্জাম ক্যাডেট মাদ্রাসায় শিক্ষক ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে উত্তেজিত জনতা মাদ্রাসায় প্রবেশ করে অভিযুক্ত শিক্ষককে গণধোলাই দেয়। পরে টহল পুলিশের সদস্যরা এসে সাইফুল ইসলামকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়।

নির্যাতনের শিকার ছাত্র জানায়, শুক্রবার রাতে শিক্ষক সাইফুল ইসলাম তার সাথে ভাল ভাল কথা বলে রুমে নিয়ে যায়। পরে তার সাথে অনৈতিক কাজ করে। সকালে ওই ছাত্র বাড়িতে গিয়ে তার বাবাকে বিষয়টি জানায়। এর আগেও ওই শিক্ষক তার সাথে একাধিকবার এরকম করেছে বলেও অভিযোগ করে ছাত্রটি।

ছাত্রটির বাবা অভিযোগ করেন, শনিবার সকালে তার ছেলে কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে যায়। পরে তাকে জিজ্ঞেস করলে সে পুরো ঘটনা খুলে বলে। আমি লম্পট শিক্ষক সাইফুল ইসলামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এরকম অনৈতিক কাজে লিপ্ত হতে না পারে।

ওই মাদ্রাসার আরও কয়েকজন ছাত্রের অভিভাবক জানান, এ পর্যন্ত এই মাদ্রাসায় আরও তিন শিক্ষককে একই ঘটনার জন্য চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে।

ভোলা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর খায়রুল কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে শহরে টহল পুলিশের একটি মোবাইল টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। ভিকটিমের পরিবার এখনও মামলা করেনি। মামলা করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৪অক্টোবর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত