মেয়রের বিরুদ্ধে সরকারি জায়গার মাটি বিক্রির অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:৫৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা পৌরসভার মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েলের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে মাটি ও বালু উত্তোলন করে বিক্রির অভিযোগে পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ক্ষতিগ্রস্তদের পক্ষে শারমীন আক্তার নামে এক নারী সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন। ইতোমধ্যে প্রশাসন চারটি ড্রেজার ও পাইপ জব্দ করেছে।

লিখিত বক্তব্যে শারমীন আক্তার বলেন, ‘কসবা পৌরসভার মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েল, কসবা উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব শরীফুল হক স্বপন, পৌর কাউন্সিলর মো. সজীব ও বিনাউটি ছাত্রদলের সভাপতি সুমন চৌধুরী কসবা উপজেলার তিনলাখপীর এলাকায় রাস্তার পাশে সরকারি খাস জায়গা ও ব্যক্তি মালিকানার ফসলি জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি ও বালু উত্তোলন করছেন। জমিতে ৩০০ ফুট গভীর করে ড্রেজার দিয়ে মাটি ও বালু উত্তোলন করে রেলওয়ের কাছে বিক্রি করে শত কোটি টাকা উপার্জন করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘খাস জায়গা থেকে মাটি ও বালু উত্তোলনের ফলে পাশে থাকা ব্যক্তি মালিকানাধীন ৩০ বিঘা ফসলি জমির মাটি ভেঙে গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে শতাধিক কৃষক ভূমিহীন হওয়াসহ বসতভিটা এবং বিল্ডিংয়ে ফাটল দেখা দিয়েছে। পাশাপাশি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবস্থিত হওয়ায় যে কোনো মুহূর্তে বড় ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’

ক্ষতিগ্রস্তরা অভিযুক্তদের সাথে দেখা করলে তারা হামলা-মামলার ভয় দেখিয়ে বাড়িছাড়ার হুমকি দেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান শারমীন।

সংবাদ সম্মেলনে শারমীন আক্তারের শ্বশুর বাছির মিয়া, ক্ষতিগ্রস্ত বাচ্চু মিয়া, বাবুল মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

কসবা পৌরসভার মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েল জানান, মাটি-বালু উত্তোলনের সাথে জড়িত নন। দাবি করেন, হুমকির বিষয়ে কিছুই জানেন না তিনি।

(ঢাকাটাইমস/১৩নভেম্বর/প্রতিনিধি/এএইচ/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত