টেন্ডার নিয়ে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতার মৃত্যু

ব্যুরো প্রধান, রাজশাহী
 | প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৩:৪৫

রাজশাহীতে রেলওয়ের টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আওয়ামী লীগ ও সৈনিক লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় আহত যুবলীগ নেতা সানোয়ার হোসেন রাসেল মারা গেছেন। বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

রাসেল রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সদস্য। নগরীর বাস্তুহারা এলাকায় তার বাড়ি। রাসেলের বাবার নাম মৃত আবুল কাশেম। বুধবার দুপুরে ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছিলেন তিনি।

একই ঘটনায় রাসেলের ভাই আনোয়ার হোসেন রাজাসহ দুই গ্রুপের অন্তত পাঁচজন আহত হন। রাজা নগরীর বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।
দুপুরে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সদর দপ্তরের পাশে রাস্তার ধারে দুইপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর রাজা, রাসেল ও সোনা নামের আরেক আওয়ামী লীগ কর্মীকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে রাসেল মারা গেলেন। অন্য দুইজনের শরীরেও ছুরির আঘাত রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, রেল ভবনের টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা রাজা ও মহানগর সৈনিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সুজন আলীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। দুপুরে রেল ভবনের সামনে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এরই একপর্যায়ে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। ঘটনার পর পুলিশ গিয়ে রেলভবন ও মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়াম সংলগ্ন ভাংড়ির দোকানের সামনে থেকে একটি রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করে।

নগরীর চন্দ্রিমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, সংঘর্ষের পর স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে পাঠান। সন্ধ্যায় রাসেল মারা যান। আর সংঘর্ষের পরই রাব্বি নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়ের হবে।

ঢাকাটাইমস/১৩নভেম্বর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :