শরীয়তপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের টাকা আত্মসাতকারী কারাগারে

শরীয়তপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৭, ২৩:৫৬

জেলার ভ্রাম্যমাণ আদালতের আদায় করা এক কোটি ৮০হাজার টাকা আত্মসাতের মামলায় জেলা প্রশাসকের বেঞ্চ সহকারী মো. ইমাম উদ্দিনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। 

মঙ্গলবার দুপুরে শরীয়তপুর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে সাবেক জেলা প্রশাসকের বেঞ্চ সহকারী মো. ইমাম উদ্দিন। এসময় তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলা দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন একটি মামলায় বিচারক আতাউর রহমান ও আরেকটি মায়লায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেট আদালতের বিচারক মনিরুজ্জামান তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ভ্রাম্যমাণ আদালতের ২০১০ সালে ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৬ মে ২০১৬ পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের বেঞ্চ সহকারী পদে কর্মরত ছিলেন মো. ইমাম উদ্দিন। এ সময়ের মধ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালতের তিন হাজার ৫৯৫টি মামলার জরিমানা হিসেবে এক কোটি পাঁচ লাখ ৩০হাজার ৫৫০ টাকা আদায় করা হয়। যা চালানের মাধ্যমে সোনালী ব্যাংকের শরীযতপুর শাখায় জমা দেয়ার দায়িত্বে ছিলেন ইমাম উদ্দিন। কিন্তু তিনি পুরো টাকা জমা না দিয়ে ভুয়া চালানের মাধ্যমে এক কোটি ৮০হাজার টাকা আত্মসাত করে পালিয়ে যান। আত্মসাতের ঘটনায় সহযোগী হিসেবে তার স্ত্রী কমলা বেগম একই কার্যালয়ে অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত থেকে তাকে সহযোগিতা করেন।

এ ঘটনায় মো. ইমাম উদ্দিন ও তার স্ত্রী কমলা বেগমকে আসামি করে গত বছরের ১৮ জুন সহকারী কমিশনার জিনিয়া জিন্নাত ও ১৯ জুন অফিস সহকারী নাজমুল হাচান বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় দুটি মামলা করেন। পরে ১৯ জুন পুলিশ কমলাকে গ্রেপ্তার করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়। বর্তমানে তিনি জামিনে রয়েছেন। এছাড়া, দীর্ঘ দিন পলাতক থাকার পরে আজ মঙ্গলবার শরীয়তপুর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

(ঢাকাটাইমস/২১মার্চ/প্রতিনিধি/জেডএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত