জঙ্গি বিপুলের লাশ নেবে না পরিবার

শওকত আলী, চাঁদপুর প্রতিনিধি
| আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০১৭, ০০:৩৫ | প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৭, ০০:২০
ফাঁসি কার্যকর হওয়া শরীফ শাহেদুল ওরফে বিপুল।

ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলার দায়ে ফাঁসি কার্যকর হওয়া শরীফ শাহেদুল ওরফে বিপুলের লাশ নেবে না বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

চাঁদপুরের সদর উপজেলার মৈশাদী ইউনিয়নের ছেলে জঙ্গি বিপুল। বুধবার রাতে চাঁদপুর সদরে তার গ্রামের বাড়ি বকশি পাটওয়ারী বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় পরিবারের সদস্যদের মাঝে কোনো ভাবান্তর নেই। তারা সবাই প্রতিক্রিয়াহীন। বাড়িতে লোকজন থাকলেও কেউ সামনে আসতে রাজি নন। 

অনেক ডাকা-ডাকি করার পর বিপুলের ছোট বোন সুমাইয়া (১৪) কথা বলেন ঢাকাটাইমসের সঙ্গে।

সুমাইয়া জানান, তার বাবা হেমায়েত হোসেন পাটওয়ারীর কাছে পুলিশ এসে বলেছিলেন তাঁর ফাঁসি হলে লাশ গ্রহণ করবেন কিনা। হেমায়েত পাটওয়ারী বলেছেন, তিনি লাশ গ্রহণ করবেন না এবং তাকে দেখতেও চান না।
আরেক বোন শাহীনুর জানান, বিপুল কোন সময় বাড়িতে আসতেন না। তিনি সিলেটেই থাকতেন। সিলেটে তার স্ত্রী রুমি ও ছেলে হুজাইফা থাকেন। তাদের সঙ্গে কোনো ধরনের যোগাযোগ নেই।

মৈশাদী তালতলা বাজারের ব্যবসায়ী মো. মঈনুল ইসলাম জানান, বিপুলের বাবা দুই বিয়ে করেছেন। বিপুলের মা ফখরুন আক্তার ২০০২ সালের ৩০ অক্টোবর মারা গেছেন। তার আপন ভাই শিমুল চাঁদপুরেই একটি কোম্পানিতে চাকরি করেন। দুই বোনের বিয়ে হয়েছে। বিপুলের সৎ মা ও দুই সৎ বোন রয়েছে।

বিপুলের মামা আলন পাটওয়ারী জানান, বিপুলের বাবা জানিয়েছেন তিনি লাশ গ্রহণ করবেন না। তিনি হার্টের রোগে আক্রান্ত।

তবে প্রশাসনের নির্দেশনায় মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মানিক পাটওয়ারী বিপুলের মরদেহ দাফনের ব্যবস্থা করেছেন। সন্ধ্যায় বাড়ির কবরস্থানের জায়গা নির্ধারণ করা হয়। লাশ আসা মাত্রই দাফন করা হবে। 

মনিরুজ্জামান মানিক জানান, বিপুলের পিতার সাথে আমার কথা হয়েছে। তিনি লাশ গ্রহণও করবেন না দাফনও করবেন না। 
সরকারের নির্দেশনার আলোকে আমরা দাফন কাজ সম্পন্ন করবো।

(ঢাকাটাইমস/১৩এপ্রিল/প্রতিনিধি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত