বাওয়ার কুমারজানী খেলার মাঠ সংস্কারের দাবি

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৪:২০ | প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১২:৪২

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভার বাওয়ার কুমারজানী গ্রামের মধ্যপাড়া মসজিদ সংলগ্ন খেলার মাঠ দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় খেলাধুলার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ফলে গ্রামের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ছেলে-মেয়েরা খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড করা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এতে গ্রামের ছাত্র-ছাত্রীরা মাদক সেবনের দিকে ঝুঁকে পড়াসহ নানাভাবে বিপদগামী হয়ে পড়ছে।

পৌরসভার ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ডের সম্পূর্ণ এবং ৩ নং ওয়ার্ডের অর্ধেক অংশ নিয়ে পৌরসভার সর্ববৃহৎ বাওয়ার কুমারজানী গ্রামের অবস্থান। ৫ নং ওয়ার্ডে গ্রামের মধ্যপাড়া মসজিদ সংলগ্ন প্রায় এক একক আয়তনের এই মাঠে গ্রামের প্রায় পাঁচ  হাজার বাসিন্দা খেলাধুলা করা ছাড়াও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আচার অনুষ্ঠান পালন করত। এছাড়া গ্রামের যুবসমাজের উদ্যোগে প্রতি বছর এই মাঠে মঞ্চ নাটকের আয়োজনসহ সামাজিক সালিশ দরবার ও আচার-অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা করত। কিন্ত গ্রামের প্রায় পাঁচ হাজার মানুষের জন্য থাকা একমাত্র এই মাঠটিতে দীর্ঘদিন কোন উন্নয়ন কাজ না হওয়ায়  প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে মাঠে পানি উঠে তলিয়ে যাওয়ায় চারপাশ ভেঙে আয়তনে ছোট হয়ে পড়েছে। ফলে গ্রামের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীরা খেলাধুলা করা থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়াসহ নানা আচার-অনুষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড শেখা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। আর যুবসমাজ খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়ায় অনেকে মাদক সেবনের দিকে ঝুঁকে পড়াসহ নানাভাবে বিপথগামী হয়ে পড়ছে। 

বাওয়ার কুমারজানী গ্রামের বাসিন্দা মির্জাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যাপক দুর্লভ বিশ্বাস বলেন, শৈশব ও যৌবনে আমরা এই মাঠে ফুটবল, ভলিবল ও হাডুডু খেলেছি। কিন্ত মাঠে প্রতি বছর বর্ষার পানি উঠে তলিয়ে যাওয়ায় চার পাশ ভেঙে ও দিন দিন নিচু হয়ে আয়তনে ছোট হয়ে পড়েছে। গত দুই যুগেও মাঠের কোন সংস্কার না হওয়ায় বর্তমানে তা খেলাধুলার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

গ্রামের বাসিন্দা ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর হাজী সিরাজ মিয়া বলেন, আমাদের সময় খেলাধুলা, আচার-অনুষ্ঠান ও মঞ্চ নাটকসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এই মাঠেই হতো। দিনদিন চারপাশ ভেঙে ও নিচু হয়ে আয়তন ছোট হয়ে পড়ায় এখন ছেলে-মেয়েরা আর খেলাধুলা করতে পারে না। ফলে যুবসমাজ মাদক সেবনের দিকে ঝুঁকে পড়াসহ নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে।

তিনি মাঠ সংস্কারের মাধ্যমে খেলাধুলার ব্যবস্থা করে সুস্থ যুবসমাজ গঠনে যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র সাহাদত হোসেন বলেন, বরাদ্দ পেলে মাঠ উন্নয়ন করা হবে।

টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান খান ফারুক মাঠটি খেলাধুলার উপযোগী করতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

(ঢাকাটাইমস/২১এপ্রিল/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত