প্রাইভেট না পড়ায় স্কুলছাত্রীকে শিক্ষকের মারধর, বাবা লাঞ্ছিত

কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ এপ্রিল ২০১৭, ১৭:৩০
স্কুলছাত্রী জাসিয়া আক্তার

প্রাইভেট না পড়ার জেরে মাদারীপুরের কালকিনিতে জাসিয়া আক্তার (১১) নামের এক ক্ষুদে শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছেন সরোয়ার হোসেন নামের এক প্রধান শিক্ষক। এর প্রতিবাদ করায় শিক্ষার্থীর বাবা আতিকুর রহমানকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জাসিয়া পৌর এলাকার ৩নং রাজদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

হাসপাতাল ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, পৌর এলাকার দক্ষিণ রাজদী গ্রামের আতিকুর রহমান শিকদারের স্কুলপড়ুয়া মেয়ে জাসিয়া আক্তার তার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরোয়ার হোসেনের কাছে দীর্ঘদিন প্রাইভেট পড়ে আসছে। কিন্তু আর্থিক সমস্যার কারণে এ প্রাইভেট পড়া বন্ধ করলে প্রধান শিক্ষক সরোয়ার হোসেন ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার বিকালে জাসিয়া আক্তারকে শ্রেণিকক্ষে বসে বেদম মারধর করেন। পরে জাসিয়াকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় প্রধান শিক্ষক সরোয়ার হোসেনের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন ওই শিক্ষর্থীর বাবা আতিকুর রহমান শিকদার। এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন কর্মকর্তারা।

শিক্ষার্থীর মা আফরোজা বেগম ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘প্রাইভেট পড়া বন্ধ করে দেয়ায় আমার মেয়েকে শিক্ষক মারধর করেছেন। আমার স্বামীকেও লাঞ্ছিত করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক সরোয়ার হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি ঢাকাটাইমসের কাছে অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরীফুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ওই ছাত্রীকে আমরা দেখতে হাসপাতালে গিয়েছি। তাকে যে নির্যাতন করা হয়েছে তা অমানবিক। আমরা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেব।’

(ঢাকাটাইমস/৩০এপ্রিল/প্রতিনিধি/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত