বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কে বিশ্বমানের ডেটা সেন্টার হচ্ছে

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযু্ক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৭, ১৭:১১

ডাটা সেন্টারের হোস্টিং ক্যাপাসিটি বাড়ানো, সরকারি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ডেটা সুরক্ষিত ভাবে সংরক্ষণ এবং জাতীয় ই-সেবার মাধ্যমে নাগরিক সেবা দ্রুত ও নিশ্চিত করতে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটি প্রাঙ্গণে গড়ে তোলা হচ্ছে ফোর টায়ার ডেটা সেন্টার। এটি হবে বিশ্বমানের সর্বাধুনিক ডেটা সেন্টার। আজ বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের আপটাইম ইনস্টিটিউট ফোর টায়ার ডেটা সেন্টারের ডিজাইন অনুমোদন দেয়। 

যুক্তরাষ্ট্রের আপটাইম ইনস্টিটিউট ফোর টায়ার মানের ডেটা সেন্টারকে তিন ধাপে সনদ প্রদান করে।

এই অনুমোদনের ফলে ডেটা সেন্টার স্থাপনে এক ধাপ অগ্রগতি হলো যা আপটাইম ইনস্টিটিউট থেকে টিয়ার ফোর গোল্ড ফল্ট টলারেন্ট সার্টিফিকেশন অর্জনের মাধ্যমে সমাপ্তি হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। 

অনুমোদন প্রাপ্তিতে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃঢ় নেতৃত্বে ও তার আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টার সার্বিক তত্ত্বাবধানে দিনে দিনে ডিজিটাল বাংলাদেশের কলেবর বাড়ছে। আর সাথে সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বেশি পরিমাণে ডেটা সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তাও। এই বাড়তি চাহিদা মেটাতে আমরা কালিয়াকৈরের বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে টিয়ার ফোর মানের ডেটা সেন্টার স্থাপন করছি।’

‘ফোর টায়ার ন্যাশনাল ডাটা সেন্টার’ প্রকল্পের আওতায় দেশে একটি সমন্বিত ও  বিশ্বমানের ডাটা সেন্টার গড়ে তোলা হচ্ছে যার ডাউন টাইম শূন্যের কোঠায়। এর ফলে সরকারের বিভিন্ন সংস্থার ডিজিটাল কন্টেন্ট সংরক্ষণের ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে, ডিজিটাল কন্টেন্ট সমূহের সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার মধ্যে তথ্য আদান প্রদানের মাধ্যমে জনসেবা উন্নত হবে এবং ক্লাউড কম্পিউটিং ও জি-ক্লাউড প্রযুক্তিতে বিশ্বের ষষ্ঠ বৃহত্তম স্থান হিসাবে অবদান রাখবে। 

প্রকল্পটির মাধ্যমে সরকারের সকল মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তর, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সকল সরকারি কার্যালয়ের আইসিটি কার্যক্রম সরাসরি যুক্ত থাকবে।

এ ডেটা সেন্টারের জন্য আন্তর্জাতিক মানের দ্বিতল ভবন তৈরি হচ্ছে। ইতোমধ্যে নির্মাণ কাজের ৭০ শতাংশ অগ্রগতি হয়েছে। 

ডেটা সেন্টারের ইলেট্রিক্যাল ও আইটি ইকুইপমেন্ট ডিজাইন ও স্পেসিফিকেশন চূড়ান্ত করে প্রকল্পটির আওতায় স্থাপিত সার্ভার, স্টোরেজ, নেটওয়ার্ক, পাওয়ার সিস্টেম, কুলিং সিস্টেম, ফায়ার সিস্টেম ও অন্যান্য যন্ত্রপাতির আমদানিও শেষ পর্যায়ে।

এই ডাটা সেন্টার তৈরিতে ফোর টায়ার জাতীয় ডাটা সেন্টার প্রকল্পে কর্মকর্তাগণ বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত এবং দীর্ঘদিন ধরে এই কার্যক্রমের তদারকি করে আসছে।  
বিশালাকার এই ডাটা সেন্টারে থাকছে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ৬০৪ টি র‌্যাক, ৯ এমভিএ লোডের রিডান্ডেন্ট লাইনসহ সমৃদ্ধ ২৪ ঘণ্টার নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যু সংযোগের ব্যবস্থা, উচ্চ গতিসম্পন্ন ৪০ জিবিপিএস রিডান্ডেন্ট ডেটা কানেকটিভিটি, ইন্টারনেট সংযোগ। 

একনেক সভায় অনুমোদিত হওয়া এই প্রকল্পের মোট প্রাক্কলিত ব্যয় ১ হাজার ৫১৬.৯০ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৩১৭.৫৫ কোটি  টাকা সরাকারি অর্থায়ন এবং বাকী  ১ হাজার ১৯৯.৩৬ কোটি টাকা প্রকল্প সাহায্য। প্রকল্পটি  ২০১৮ সালের জুনে শেষ হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৫জুন/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত