সুবর্ণচরে কিশোরীকে ‘দলবেঁধে ধর্ষণ’

নোয়াখালী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ আগস্ট ২০১৯, ২২:০৮

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে এক কিশোরীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার দুপুরে মেয়েটিকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের চর আলা উদ্দিন গ্রামের বাহার উদ্দিনের মেয়ে।

মেয়েটির পরিবার বলছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মেয়েটি পাশের মোস্তাননগরে বড় বোন শাহীনা বেগমের বাড়িতে বোনের মেয়েকে নিয়ে যাচ্ছিল। এসময় তাদের গতিরোধ করে হোসেন ব্যাপারী ও সোহেল। পরে তারা মুখ চেপে তাকে তুলে চর আলাউদ্দিন বাজারের পশ্চিম পাশের একটি খামারবাড়িতে নিয়ে যায়। খামারবাড়িতে আরো দুই ব্যক্তি ছিল। পরে প্রথমে কিশোরীকে কাদা মাটিতে ফেলে হোসেন ব্যাপারী ও পরে সোহেল ধর্ষণ করে। এসময় তারা তাদের মোবাইলে সেই ধর্ষণের দৃশ্য ভিডিও করে কাউকে জানালে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়া হবে বলে হুমকি দেয়। সুযোগ বুঝে ভিকটিম পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে হোসেন ব্যাপারী তাকে আবার ধরে গলায় পা দিয়ে চেপে হত্যার চেষ্টা করলে সে অচেতন হয়ে যায়।

তার পরিবারের লোকজন আরো জানায়, ভিকটিমের বোনের মেয়ে বাড়িতে গিয়ে ঘটনা জানালে তার মা লোকজন নিয়ে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেন। এর একপর্যায়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে আলাউদ্দিন বাজারের পশ্চিম পাশের একটি খামারবাড়িতে অচেতন অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করেন তারা। পরে রাত তিনটার দিকে তার জ্ঞান ফিরে আসে।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) সৈয়দ মোহাম্মদ আব্দুল আজিম জানান, দুপুরে ভিকটিমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে সে গাইনি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ উদ্দিন জানান, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। তবে ভিকটিমের পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ আসেনি। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

(ঢাকাটাইমস/১৬আগস্ট/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :