প্রধান বক্তা হিসেবে আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলেন ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩:৫৯ | প্রকাশিত : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩:৩৯

প্রধান বক্তা হিসেবে ভারতের আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়টির উদ্যোগে আয়োজিতভয়েসেস অব দ্য ওয়ার্ল্ড: অ্যা সেলিব্রেশন অব ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডেঅনুষ্ঠানেচিফ কি নোটস্পিকার হিসেবে বক্তব্য রাখবেন তিনি।

ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম পান্থ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়েরভয়েসেস অব দ্য ওয়ার্ল্ড: অ্যা সেলিব্রেশন অব ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডেঅনুষ্ঠানে চিফ কি-নোট স্পিকার হিসেবে অংশ নিবেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন। একইদিন বিকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে তিনি আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি আয়োজিতএমব্রেসিং লিঙ্গুইস্টিক ডাইভারসিটি : এন ইন্টারেক্টিভ কালচারাল ইভিনিং ইন কমেমোরেশন অব ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডেশীর্ষক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও যোগ দেবেন।

ছাত্রলীগ সভাপতি ভারত সফরকালে অথবা দেশে ফেরার আগ পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে সহসভাপতি রাকিবুল হাসান রাকিব দায়িত্ব পালন করবেন বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় ভারতের উত্তর প্রদেশ অঙ্গরাজ্যের আলিগড় শহরে অবস্থিত। কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আদলে প্রতিষ্ঠিত এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি ব্রিটিশ রাজত্বের সময় ভারতের সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটিতে পরিগণিত হয়। তৎকালীন অনেক স্বনামধন্য মুসলিম চিন্তাবিদ উর্দু ভাষার বিখ্যাত কবি লেখক এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। ১১৫৫ একরের এই বিশাল ক্যাম্পাস জুড়ে রয়েছে কিছু বিখ্যাত স্থাপনা।

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২টি অনুষদে মোট ৭৪টি ডিপার্টমেন্ট রয়েছে। বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভারতীয় রাজনীতিক এবং স্বাধীনতা কর্মী রফি আহমেদ কিদোয়াই, বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সাবেক স্পিকার এবং কূটনীতিবিদ হুমায়ূন রশীদ চৌধুরী, পূর্ব পশ্চিম পাকিস্তানের পুনর্বাসন কমিশনার চৌধুরী আবদুল হামিদ খান, প্রাক্তন উপাচার্য জিয়াউদ্দীন আহমেদ, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিবাহিনী সেনাবাহিনীর প্রধান সেনাপতি মহম্মদ আতাউল গণি ওসমানী, রাজনীতিবিদ, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের সৈনিক শিক্ষক। নূরেজ্জামান ভুঁইয়া, তেভাগা আন্দোলনের 'জনক' হাজী মোহাম্মদ দানেশ, অধ্যাপক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৮তম উপাচার্য মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান, সাংবাদিক ওয়াজেহ রশিদ নদভী বাঙালি লেখক সৈয়দ মুজতবা আলীসহ অসংখ্য গুণি মানুষ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/২৮ফেব্রুয়ারি/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :