ঘুমন্ত শিশুকে কুপিয়ে হত্যা করল দাদা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ মে ২০১৭, ১০:২৫

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বকচরা গ্রামে নিজ বাড়িতে ঘুমন্ত এক শিশুকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। আট বছর বয়সী মাদ্রাসাপড়ুয়া শিশুটির তার দাদা হত্যা করেছে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার রাত সোয়া ১১টার দিকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত সম্রাট সদর উপজেলার আগরদাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মজনু মালীর ছেলে ও বকচরা আহম্মদিয়া দাখিল মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। পুলিশ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে নিহতের দাদা ইসরাইল মালীকে আটক করেছে। তার বাবার নাম মৃত মোমিন মালী।

শিশুটির মা সাবিনা মালী জানান, তার শ্বশুর ইসরাইল মালী কয়েকদিন ধরে অস্বাভাবিক জীবনযাপন করছিল। গতকাল দুপুরে মস্তিস্ক বিকৃতির কারণে শাবল নিয়ে ঘুরে বেড়ানোর সময় স্থানীয়রা একটি মসজিদের মধ্যে তাকে আটকে রাখেন। সেখান থেকে বের হওয়ার পর তার শ্বশুর একটি দা নিয়ে বিভিন্নস্থানে ঘুরে বেড়ান।

রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাড়িতে আসার পর ঘুমিয়ে থাকা শিশু সম্রাটকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেন তিনি। পরে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এদিকে আটককৃত ইসরাইল মালী নিজেকে হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে বলেন, তিনি পরিস্থিতির শিকার।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. পরিমল কুমার বিশ্বাস জানান, নিহত সম্রাটের মাথায় তিনটি, গলায় একটি ও বুকের ডান ও বাম পাশে একটি করে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আব্দুল হাশেম জানান, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি দা জব্দ করা হয়েছে। মৃত্যুর পেছনে অন্য কোনো কারণ আছে কি না তা দেখা হচ্ছে।

ঢাকাটাইমস/২৭মে/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত