সিলেট-১ আসনে ‘আছেন’ মুহিত

সিলেট ব্যুরো প্রধান, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৯ জুন ২০১৭, ১৫:৪৬ | প্রকাশিত : ০৯ জুন ২০১৭, ১৪:১২

রাজনীতি থেকে অবসরে যাওয়ার ইচ্ছার কথা জানানোর কয়েক মাসের মধ্যেই আবার আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার আগ্রহের কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তবে এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত নয় বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরে সিলেট সদর উপজেলা পরিষদে চা শ্রমিকদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মুহিত এই ঘোষণা দেন।

আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হবেন কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন- ‘আমি আছি, তবে দাঁড়াব কি-না সেটা পরে দেখা যাবে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন,‘আগামী নির্বাচনে অংশ নেয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।’

গত ৫ এপ্রিল সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলোচনায় রাজনীতি থেকে অবসরে যাওয়ার ইচ্ছার কথা বলেন মুহিত। তিনি বলেন, ‘আই উইল রিটায়ার ইন টু থাউজ্যান্ড এইটিন। আই থিংক ইট উইলবি এ গুড টাইম। দ্যাট টাইম আই উইলবি এইটি ফাইভ।’

এর আগে গত অক্টোবরে একটি বিদেশি গণমাধ্যমেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে মুহিত বলেন, ‘অর্থমন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করা খুবই কঠিন। এই বয়সে এসে কখনও কখনও ক্লান্ত লাগে।’ তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর কোথাও আমার বয়সী কোনো অর্থমন্ত্রী আপনি পাবেন না।’

এর আগেও নিজের বয়স বেড়ে গেছে উল্লেখ করে একাধিক অনুষ্ঠানে আগামী নির্বাচনে অংশ না নেয়ার কথা বলেছিলেন ৮৪ বছর বয়সী মুহিত। ছোট ভাই জাতিসংঘের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি এ কে আবুল মোমেনকে প্রার্থী হিসেবেও পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন তিনি।

গত ৫ জুন সচিবালয়ে সাংবাদিকদেরকে বলেন, ‘আমি আমার নির্বাচনী এলাকায় এখন খুব বেশি দায়িত্ব পালন করতে পারছি না। একে আবদুল মোমেন (মুহিতের ছোট ভাই) আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।’

সদর ও সিটি করপোরেশনের একাংশ নিয়ে গঠিত সিলেট-১ আসনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ভোট ছাড়াই নির্বাচিত হন মুহিত। এর আগে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমানকে পরাজিত করে নির্বাচিত হন তিনি।

নবম সংসদ নির্বাচনে মুহিত পান এক লাখ ৭২ হাজার ৮১৩ ভোট। আর সাইফুর রহমান পান এক লাখ ৩৫ হাজার ২১৩ ভোট।

চা শ্রমিকদের হাতে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, আগামী বছরের ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। 

মুহিত বলেন, ‘গণতন্ত্রের রক্ষা কবজ হচ্ছে নির্বাচন। কারণ নির্বাচনে জনগণ প্রার্থীদের শিক্ষা দিতে পারেন। প্রার্থীরা জনগণের সাথে খারাপ ব্যবহার করলে নির্বাচনে তাকে প্রত্যাখান করেন, আর ভালো কাজ করলে তাকে গ্রহণ করেন।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘গত আট বছর ধরে বর্তমান সরকার দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। সরকার প্রধান শেখ হাসিনারও একমাত্র লক্ষ্য জনকল্যাণ।’ শেখ হাসিনার এই অবদানের কথা আগামী নির্বাচনে মনে রেখে সাধারণ মানুষকে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ারও আহ্বান জানান মুহিত।

সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাইজার মোহাম্মদ ফারাবির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ।

ঢাকাটাইমস/০৯জুন/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত