‘বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার স্বপ্নই শুধু দেখেননি, বাস্তবায়নও করেছিলেন’

মো. মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ আগস্ট ২০১৭, ০৯:৪৮ | প্রকাশিত : ১৬ আগস্ট ২০১৭, ০৯:৪৩

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শুধু বাংলাদেশকে স্বাধীন করার স্বপ্নই দেখেননি, তিনি তা বাস্তবায়ন করেও দেখিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন ‘কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের’ চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান দোলন। তিনি বলেন, ‘১৯৪৭ সালে পাকিস্তান সৃষ্টির পর পশ্চিম পাকিস্তানিরা আমাদের সব কিছুর উপর যেভাবে নিয়ন্ত্রণ, শোষণ, নির্যাতন আর নিপীড়ন চালাচ্ছিল, বঙ্গবন্ধু তখন থেকেই এই দেশকে দ্রুত স্বাধীন করার স্বপ্ন দেখেছিলেন। তিনি শুধু স্বপ্নই দেখেননি, তা বাস্তবায়নও করে দেখিয়েছেন।’

বুধবার সন্ধ্যায় ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার সাতৈর ইউনিয়ন অফিসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকাটাইমস সম্পাদক দোলন বলেন, ’১৫ আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে কলঙ্কময় দিন। দিনটি বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে শোকের ও বেদনার দিন। এই দিনে স্বাধীনতার স্থপতি বাংলাদেশের জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে ঘাতকেরা নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। ভাগ্যক্রমে সেদিন আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা পরম করুণাময় আল্লাহর রহমতে প্রাণে বেঁচে যান। জননেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন বলেই আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও চেতনা ধারণ করে তার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে পারছি। আর তার নেতৃত্ব দিচ্ছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।’

‘এই সময়’ সম্পাদক বলেন, ‘ঘাতকরা ভেবেছিল বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করতে পারলেই তার চেতনাকে ও তার আদর্শকে বাংলদেশ থেকে মুছে ফেলা যাবে। কিন্তু ওরা জানে না, ওরা জানতো না, ওরা বুঝতে পারে নাই যে সেই চেতনা আরও বিস্তৃত হবে। বাংলাদেশের আনাচে কানাচে সেই চেতনা আরও ভালোভাবে ছড়িয়ে পড়বে।’

‘কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের’ প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ‘আজকে আসলে বক্তৃতার করার দিন না। আজ বঙ্গবন্ধুকে স্বরণ করার দিন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে আরও বেশি করে উপলব্ধি করা। বঙ্গবন্ধুর জীবনীকে প্রত্যেকের মাঝে আরও ভালো করে ছড়িয়ে দেওয়া এবং চর্চা করার দিন।’

দোলন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু যদি এই দেশে জন্মগ্রহণ না করতেন, তিনি যদি না থাকতেন কোনভাবেই স্বাধীনরাষ্ট্র হিসাবে বাংলাদেশের জন্ম হত না। আর যদি স্বাধীন বাংলাদেশ সৃষ্টি না হত, তাহলে আজ আমাদের যে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি তা সম্ভব হত না।’

ঢাকাটাইমস সম্পাদক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজ তার মেয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাস্তবায়ন করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য হবে শেখ হাসিনার পাশে থেকে তার হাতকে শক্তিশালী করা।’

তিনি বলেন, ‘আমার পূর্বপুরুষ মানুষের সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। আমি সেই কাঞ্চন মুন্সী পরিবারের সন্তান। আমিও মানুষের সেবায়, আপনাদের সেবায় আমার পূর্বপুরুষের মত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসাবে কাজ করতে চাই। ব্যক্তিগতভাবে কোনো কিছু আমার চাওয়া পাওয়া নাই। আমি কিছুই চাইনা।’

সাতৈর ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন, ফরিদপুর জেলা পরিষদ সদস্য শেখ শহীদুল ইসলাম শহীদ, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা শেখ শওকত আহমেদ প্রমুখ।

ঢাকাটাইমস/১৬আগস্ট/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজপাট বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত