ফরিদপুরের দুই উপজেলায় ২৮ ঘর বিধ্বস্ত

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৪ মে ২০১৯, ১৮:২৩

ফণীর আঘাতে ফরিদপুরের সদর ও মধুখালী উপজেলার দুটি ইউনিয়নে ২৮টি ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। উপড়ে গেছে দেড় শতাধিক গাছ। শুক্রবার বিকালে মধুখালী উপজেলার জাহাপুর ও রাতে সদরের ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নে এ ঝড় বয়ে যায়।

ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর, ফতেপুর, ভবানীপুর ও চক ভবানীপুর গ্রমে শুক্রবার রাতে বয়ে যাওয়া ঝড়ে ১৮টি টিনের ঘর বিধ্বস্ত হয়। বেশির ভাগ ঘরের টিনের চাল উড়ে গেছে। এছাড়া ওই চারটি গ্রামে লিচু ও আমগাছসহ অন্তত শতাধিক গাছ উপড়ে গেছে। তবে প্রাণহাণির কোন ঘটনা ঘটেনি।
সত্যতা নিশ্চিত করে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মজনু বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করা হয়েছে। এ বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।’

এদিকে শুক্রবার বিকাল চারটা থেকে সোয়া চারটার মধ্যে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের উপর দিয়ে ঝড় বয়ে যায়। এর ফলে আটটি টিনের ঘর বিধ্বস্ত হয়। উপড়ে গেছে অর্ধশত গাছ। তবে প্রাণহাণির কোন খবর পাওয়া যায়নি।

ওই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মো. ইছাহাক বলেন, ঝড় মুহূর্তের মধ্যে সব লন্ডভভণ্ড করে দেয়। তবে প্রাণহাণির কোন খবর পাওয়া যায়নি।’
সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোস্তফা মনোয়ার বলেন, ঝড়ের পর থেকেই ক্ষয়ক্ষতির পরিমাপ করার কাজ শুরু হয়েছে।
ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রোকসানা রহমান বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্তদের দ্রুত পুনর্বাসন কাজ শুরু করা হবে। যাদের বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে তাদের টিন দেয়া হবে। যাদের খাদ্যের প্রয়োজন তাদের খাবার দেয়া হবে।’
তিনি বলেন, ‘জেলা প্রশাসনের ত্রাণ ভাণ্ডারে প্রয়োজনীয় টিন ও খাবার মজুদ রয়েছে।’

(ঢাকাটাইমস/৪মে/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :