পরীক্ষা দেয়া হলো না ধর্ষণ চেষ্টার শিকার শিশুর

জামালপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:৩৬
প্রতীকী ছবি

জামালপুরের মেলান্দহে তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে দোকানে আটকিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে  রইছ উদ্দিন (৫০) নামে এক মুদি দোকানির বিরুদ্ধে। রবিবার দুপুরে উপজেলার তেলীপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ কারণে বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি ওই ছাত্রী। এই ঘটনায় অভিযুক্ত রইছ উদ্দিনকে আসামি করে রাতেই মেলান্দহ থানায় মামলা করা হয়েছে।

শিশুটির পরিবার ও স্থানীয় ইউপি সদস্য জানান, মেলান্দহ উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামের দিনমজুর পরিবারের মেয়েটি স্থানীয় গুমরাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। তার বার্ষিক পরীক্ষা চলছে। রবিবার বেলা ১১টার দিকে বাংলা পরীক্ষায় অংশ নিতে বিদ্যালয়ে যাওয়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হয়। যাওয়ার পথে তেলিপাড়ায় সোহেল বাজারে রইছ উদ্দিনের মুদি দোকানে একটি কলম কিনতে গেলে দোকানদার তাকে কৌশলে দোকানের পেছনের কক্ষে নিয়ে আটক রাখে। কিছুক্ষণ পর রইছ উদ্দিন ভেতর থেকে দোকানের সব ঝাপ বন্ধ করে দেয়। একপর্যায়ে দুপুর ২টার দিকে সে শিশুটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ওই দোকানের ভেতরে শিশুর চিৎকার শুনে বাজারের লোকজনদের সন্দেহ হয়। পরে গ্রামবাসী জড়ো হয়ে দোকানদারকে ডাকাডাকি করে। রইছ উদ্দিন দোকানের ঝাপ ভেঙে হাতে লোহার শাবল নিয়ে সবাইকে ভয় দেখিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রইছ উদ্দিনের দোকান থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে তার বাবা বাদী হয়ে ধর্ষণের চেষ্টাকারী ওই দোকানদার রইছ উদ্দিনকে আসামি করে রবিবার রাতেই মেলান্দহ থানায় একটি মামলা করেন।

মেলান্দহ থানার ওসি রেজাউল ইসলাম খান বলেন, ‘শিশুটিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে বলে সে জানিয়েছে। শিশুটি বর্তমানে তার বাবার জিম্মায় রয়েছে। তার বাবার দায়ের করা মামলাটির একমাত্র আসামি দোকানদার রইছ উদ্দিনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

(ঢাকাটাইমস/৮ডিসেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :