গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে নতুন লুটপাটের আয়োজন করছে সরকার: গণতন্ত্র মঞ্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ মার্চ ২০২৪, ২৩:০৯

গণতন্ত্র মঞ্চের মিছিলে পুলিশি হামলা এবং গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার বিকালে পুরানা পল্টন মোড়ে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য আকবর খান-এর সঞ্চালনায় সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক।

এতে বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি'র সাধারণ সম্পাদক শহিদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, গণসংহতি আন্দোলনের নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল ও রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সাংগঠনিক সমন্বয়ক ইমরান ইমন। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল পুরানা পল্টন মোড় থেকে শুরু করে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ডামি নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে সরকার তাদের মাফিয়া সিন্ডিকেটের জন্য নতুন লুটপাটের সুযোগ তৈরি করতে আবারও গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা করছে। সেই সাথে রোজা সামনে রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের সিন্ডিকেটও তৎপর হচ্ছে নতুন লুটপাটের আয়োজন করতে। আর এইসব লুটপাটের প্রতিবাদে রাস্তায় নামার কারণেই সরকার তার পেটোয়া বাহিনী লেলিয়ে দিয়ে গণতন্ত্র মঞ্চের নেতাকর্মীদের ওপর সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা করেছে।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, কোনো হামলা-মামলাই ডামি সরকারের বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলন এবং তাদের লুটপাটের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ থামিয়ে রাখতে পারবে না।

মঞ্চের নেতারা সরকারকে হুঁশিয়ারি করে বলেন, তাদের ডামি নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে জনগণ যে গণরায় দিয়েছে তার ওপর ভিত্তি করে অচিরেই নতুন গণ-আন্দোলন গড়ে উঠবে। এবং তাদেরকে গণ-অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা থেকে নামানো হবে।

সমাবেশ থেকে নেতৃবৃন্দ বলেন, ১৫ বছর ধরে ক্ষমতায় থেকে যারা সিন্ডিকেটের কোনো কিছুই স্পর্শ করতে পারেনি তারা সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে আবারো ফাঁকা আওয়াজ দিচ্ছে। 'ছয় মাস পর সিন্ডিকেট থাকবে না' এই ধরনের বক্তব্যের মাধ্যমে কার্যত সিন্ডিকেটের রাজত্বকেই প্রতিষ্ঠিত করা হচ্ছে। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষের পকেট থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে। মানুষের জীবনের নাভিশ্বাস তোলার বিরুদ্ধে জনগণের আন্দোলন আর তীব্রতার হবে।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে প্রহসনের নির্বাচন বাতিলপূর্বক সংসদ ভেঙে দিয়ে সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নতুন করে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের দাবি পুনর্ব্যক্ত করে আন্দোলন জোরদার করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে মর্মান্তিকভাবে হতাহতের ঘটনা একটি কাঠামোগত হত্যাকাণ্ড। সরকার ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠাণের অবহেলার কারণে ধারাবাহিকভাবে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে। তারা দায়ী সবাইকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানান।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ কায়সার, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান রিজু, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের রাজনৈতিক সমন্বয়ক ফরিদুল হক, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি'র সাংগঠনিক সম্পাদক এস এস শামসুল আলম নিক্সন, গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য জুলহাসনাইন বাবু প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

ঢাকাটাইমস/০১মার্চ/জেবি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

আওয়ামী লীগ দেশকে গভীর পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে: মির্জা ফখরুল

বিএনপি নেতা মোশাররফ এবং আলালের বাসায় মির্জা আব্বাস 

মারাঠা বর্গিদের মতো দেশে লুটপাট চলছে: কাদের গনি চৌধুরী 

কেএনএফের মদদদাতাদের খুঁজতে কাজ করছে গোয়েন্দা সংস্থা: হানিফ

বিএনপি আ.লীগের মতো ‘ককটেল পার্টি’তে বিশ্বাসী নয়: রিজভী

যেভাবে ঈদ উদযাপন করলেন খালেদা জিয়া

রাজনৈতিক কারণে বন্দি খালেদা জিয়া: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়ার বাসভবনে বিএনপির শীর্ষ নেতারা 

বিএনপি নেতাদের ঘরে ঘরে কান্নার রোল আর ক্ষমতাসীনদের ঘরে লুটপাটের অট্টহাসি: রিজভী

আদাবরে ঈদের নামাজ শেষে সর্বসাধারণের সঙ্গে বিএনপি নেতা সালামের কুশল বিনিময়

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :