ভৈরবে বাল্যবিয়ে পড়ানোর দায়ে কারাগারে ইমাম

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ অক্টোবর ২০১৬, ১৪:৪৩

ভৈরবে বাল্যবিয়ে পড়ানোর দায়ে মাওলানা সাইফুল ইসলাম নামে এক ইমামকে সাত দিনের জেল দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার রাত ১১টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের হাকিম ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিলরুবা এ আদেশ দেন।

মাওলানা সাইফুল ইসলাম উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বায়তুল হক জামে মসজিদের ইমাম এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার বুল্লা গ্রামের আব্দুল হেকিম মিয়ার ছেলে।

শুক্রবার রাত ১১টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিলরুবা আহমেদ জানতে পারেন যে, উপজেলার শিবপুর গ্রামে একটি বাল্যবিয়ে হচ্ছে। কনে ওই এলাকার মৃত হেকিম মিয়ার মেয়ে আন্না আক্তার (১৪)। আন্না স্থানীয় জামালপুর টেকনিক্যাল স্কুলের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

তিনি ওই রাতেই পুলিশ সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হোন। আন্না আক্তারের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়ে গেছে এবং ইতোমধ্যে নববধূকে নিয়ে বরপক্ষ চলে গেছেন। তিনি তখন শিবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. শফিকুল ইসলাম এবং ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বাকী ভূঁইয়াসহ ইমাম সাইফুল ইসলামকে ডেকে আনেন। জানতে পারেন বাল্যবিয়ে হওয়ায় ওই ওয়ার্ডের কাজী বিয়েটি নিবন্ধনে অসম্মতি জানালে ইমাম সাইফুল নিজ উদ্যোগে বিয়ে পড়ান। পরে ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুল ইসলাম এবং ওয়ার্ড সদস্য বাকী ভূঁইয়ার উপস্থিতিতে ইমাম সাইফুল ইসলামকে সাত দিনের কারাদ- দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

ইমাম সাইফুল ইসলাম জানান, তিনি ওই মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি শাহাদাৎ সরকারের নির্দেশে বিয়ে পড়িয়েছেন। তার নির্দেশ অমান্য করার সক্ষমতা তার ছিল না।

(ঢাকাটাইমস/১ অক্টোবর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত