বোতলের ছিপিতে ফুলের ঝুলমি

মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম, আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর)
| আপডেট : ১৭ জুন ২০১৭, ১৪:৩৮ | প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০১৭, ১০:১০

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার গোপালপুর বাজারে চোখে পড়ে বস্তাবোঝাই প্লাস্টিকের বোতল। এতগুলো বোতলের মাঝে একটিও ছিপি নেই। পরে জানা গেল বোতলের ছিপি দিয়ে তৈরি হয় ফুলের ঝুলমি।

এক দোকানি জানালেন, ‘মামা সব কেপ বেচে দিয়েছি। প্রতিপিস দুই টাকা করে।’

তিনি আরো জানান, ‘শুনেছি- বোতলের ক্যাপ (ছিপি)দিয়ে নাকি ফুল বানায়। এটা দেখতে নাকি অনেক সুন্দর।’

ওই বাজারের আরও কয়েকটি দোকানে খোঁজ নিয়ে জানা গেল- সেখানেও একই অবস্থা। কেউ প্রতিপিস একটাকা, কেউবা দুই টাকা করে এসব ছিপি বিক্রি করেছেন।

গোপালপুর বাজারে ওয়াপদা মোড়ে চঞ্চলের দোকান থেকে বোতলের ছিপি কেনার সময় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ঢাকাটাইমসকে জানান, ‘বাড়িতে ছোট বোন আর বৌ-এর জ্বালায় বাড়ি থাকা দায়। শুধু কেপ কেপ করে। বৌ বলে, তুমি কেমন স্বামী? সামান্য কয়টা বোতলের কেপ জোগাড় করে দিতে পারো না। তাই বাধ্য হয়েই কেপ ক্রয় করতে হচ্ছে।’

অনুসন্ধানে জানা গেছে, উপজেলার বেশিরভাগ তরুণী পড়াশোনার পাশাপাশি অবসরে ঘর সাজাতেই মূলত বোতলের ছিপি দিয়ে তৈরি করছেন ফুলের ঝুলমি। যা দেখতে দৃষ্টিনন্দন ও অত্যন্ত চমৎকার। এই ফুলের ঝুলমি তৈরির উপকরণ যোগাড় করে দিয়ে সহযোগিতা করছেন তাদের বড় ভাই ও ছোট ভাইয়েরা। আবার অনেক তরুণী মুজরির বিনিময়েও তৈরি করে দিচ্ছেন দৃষ্টিনন্দন চমৎকার এসব ঝুলমি।

‘ঢাকাটাইমস’-এর সাথে কথা হয় উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের বাজড়া গ্রামের ৯ম শ্রেণি পড়ুয়া পলি খানমের সাথে। তিনি পড়াশোনার পাশাপাশি অবসর সময়ে পরিত্যাক্ত বোতলের ছিপি ফুলের ঝুলমি তৈরি করেন। ঝুলমি তৈরি করে নিজেদের ঘর সাজান, আবার মুজরির বিনিময়ে অন্যদের ঘরও সাজিয়ে দেন।

ফুলের ঝুলমি কিভাবে তৈরি করতে হয়- জানতে চাইলে পলি বলেন, ফুলের ঝুলমি তৈরি করতে সাধারণত ৫০-৬০টি বোতলের কেপ, বোতল, সূতা, বাঁশের চটা, কটনবার, সুঁচ, কেঁচি প্রয়োজন।

যেভাবে তৈরি করা হয়, এই ফুলের ঝুলমি- একটি ফুলের ঝুলমির জন্য প্রথমত বাঁশের চটি দিয়ে গোলাকার বৃত্ত আকৃতির মত তৈরি করতে হবে। পরে কাপড় দিয়ে পেচিয়ে ঢেকে দিতে হবে। ৫০-৬০টি প্লাস্টিকের বোতলের ছিপি সংগ্রহ করতে হবে। সেগুলোকে ধারালো চাকু বা বটি দিয়ে কেটে সূর্য্যমুখী ফুলের মত বানিয়ে মাঝে সূতা প্রবেশ করানোর জন্য ছোট ছোট ছিদ্র করতে হবে। প্লাস্টিকের বোতলকে কাচি দিয়ে কেটে ছোট করে গোলাকার বা ত্রিকোণ আকৃতির মত বানিয়ে তার মাঝে সূতা প্রবেশ করানোর জন্য ছোট ছিদ্র করতে হবে।  কটনবারগুলোকে মাঝখান থেকে কেটে দুভাগ করতে হবে।

দ্বিতীয়ত বাঁশের চটি দিয়ে বানানো গোলাকার বৃত্ততে সূতা বেঁধে তা সূচ দিয়ে কটনবারের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করাতে হবে। প্রতিটি কটনবারের উপরে-নিচে বোতল কেটে বানানো ছোট গোলাকার বা ত্রিকোণের মাঝে ছিদ্র দিয়ে সূতা প্রবেশ করে নিচে বোতলের কেপ আটকিয়ে দিতে হবে। এভাবেই তৈরি করা হয় দৃষ্টিনন্দন এই ঝুলমি।

(ঢাকাটাইমস/১৭জুন/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফিচার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত