সম্রাটের মুক্তি চান তারা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৩৩

যুবলীগের ঢাকা দক্ষিণের সভাপতি হলেও ইসমাইল হোসেন সম্রাটের প্রভাব ছিল সর্বত্র। দলের কর্মসূচি পালনসহ সবকিছুতেই আলোচনায় ছিলেন তিনি। তার কাছে প্রশ্রয় পেতেন সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

সম্প্রতি ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে নতুন করে আলোচনায় আসেন সম্রাট। এই অবৈধ ব্যবসা, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ইতিমধ্যে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন তিনি। তবে সম্রাটের দুঃসময়ে কেউ তাকে মনে না রাখলেও যুবলীগের দুই নেতা তার মুক্তি দাবি করেছেন।

কাকরাইলে ভূঁইয়া ম্যানশনের সামনে যুবলীগ দক্ষিণের সহ-সম্পাদক মো. নূরুল আলম ভুঁইয়া রুবেল ও মো. জসিম উদ্দিন স্বপন ফেস্টুন লাগিয়েছেন। আলাদা ফেস্টুনে তারা সম্রাটকে দলের দুর্দিনের কর্মী দাবি করে তার মুক্তি চেয়েছেন। তাকে রাজপথে ফিরিয়ে দিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধও করেছেন।

গত ৬ অক্টোবর কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটকে আটক র‌্যাব। তার সঙ্গে থাকা যুবলীগের আরেক নেতা এনামুল হক আরমানকেও আটক করা হয়। পরে তাকে নিয়ে অভিযান চালানো হয় মূল আড্ডাস্থল হিসেবে পরিচিত কাকরাইলের রাজমনি সিনেমা হলের উল্টো পাশের ভুঁইয়া ম্যানশনে।

সেখানে অভিযানের পর মদ, ইয়াবা ও ক্যাঙারুর চামড়া উদ্ধার করে র‌্যাব। ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে দুটি। আর বন্যপ্রাণী আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের রায়ে ছয় মাসের কারাভোগ করছেন তিনি। যদিও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে এখন হাসপাতালে আছেন সম্রাট।

যুবলীগ থেকে বহিষ্কৃত প্রভাবশালী নেতা সম্রাট গ্রেপ্তার হওয়ার পর এর প্রতিবাদে তেমন কোনো কর্মসূচি চোখে পড়েনি। কাকরাইলের কার্যালয় থেকে অভিযান শেষে র‌্যাব সম্রাটকে নিয়ে যাওয়ার সময় তার কিছু নেতাকর্মী বিক্ষোভ করে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ সম্রাটের পক্ষে অবস্থান নেন। তাদের দাবি, সম্রাটে ছিলেন দলের দুর্দিনের কাণ্ডারী। তার এই পরিণতিতে দলের জন্য কেউ ত্যাগ স্বীকার করবে না। 

 (ঢাকাটাইমস/১১অক্টোবর/বিইউ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :