বিএনপি-জামায়াতকে নিশ্চিহ্ন করা হবে: নাসিম

ব্যুরো প্রধান, রাজশাহী
 | প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৭:০৬

বিএনপি-জামায়াতকে বাংলাদেশ থেকে রাজনৈতিকভাবে নিশ্চিহ্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। বলেছেন, ‘চূড়ান্ত লড়াইয়ের জন্য নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকতে হবে। বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিজয়ী হবেন শুধু আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।’

রবিবার দুপুরে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নাসিম বলেন, ‘যখন কোনো দল সফল হয়, চক্রান্ত তখন গভীর হয়। এখনো গভীর চক্রান্ত হচ্ছে। বিএনপি-জামায়াত এখনো আছে। তারা বিষাক্ত সাপ। সুযোগ পেলেই ছোবল দেবে। এ ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। আওয়ামী লীগের শক্তি তৃণমূল। তারা ঐক্যবদ্ধ থাকলে যেকোনো লড়াইয়ে বিজয় আসবে।’

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারের হত্যার মূল খলনায়ক জিয়াউর রহমান দাবি করে তিনি বলেন, ‘তথ্য-উপাত্তসহ আমি বলতে পারি- বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মূল চক্রান্তকারী, খলনায়ক হলেন জিয়াউর রহমান। কমিশন গঠন করে তার মরণোত্তর বিচার করতে হবে। তা না হলে বাংলাদেশ সন্ত্রাসমুক্ত, জঙ্গিবাদমুক্ত হবে না।’

বিএনপির কারাবন্দি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, ‘বেগম জিয়ার মামলা হয়েছে ১/১১ এর সময়। সাজা হয়েছে, জেলে গেছেন। জামিন দেয়ার মালিক আদালত। জামিন দেয়ার মালিক আমরা নই। কোর্টে গিয়ে জামিন নেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে গুণ্ডামি করবেন না। সন্ত্রাস করবেন না।’

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আজকে দিয়েছিল বিক্ষোভ দিবস। দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত বেগম জিয়া, তাকে মুক্তি দিতে হবে। কী মামাবাড়ির আবদার! কে মুক্তি দেবে, শেখ হাসিনা? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী? মুক্তি দিতে পারবে একমাত্র আদালত। দুর্নীতির দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া কোনোদিনই মুক্তি পাবে না, পাবে না।’

রাজশাহী মহানগরীর বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক এই সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। সকালে এর উদ্বোধন করেন মোহাম্মদ নাসিম। বিকাল সাড়ে ৩টায় সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয় জেলা শিল্পকলা অ্যাকাডেমি মিলনায়তনে।

সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী-৬ আসনের এমপি শাহরিয়ার আলম, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, সম্মেলনের সমন্বয়ক ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, কেন্দ্রীয় কমিটির আরেক সদস্য মেরিনা জাহান, নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, উপদেষ্টা প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক, প্রফেসর ড. সাইদুর রহমান খান প্রমুখ।

সম্মলনে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সদ্যবিলুপ্ত কমিটির সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী। সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সদ্যবিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আহসানুল হক মাসুদ। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মেরাজ উদ্দীন মোল্লা।

সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে রাজশাহী-৩ আসনের এমপি আয়েন উদ্দিন, রাজশাহী-৫ আসনের এমপি ডা. মুনসুর রহমান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের এমপি ডা. সালিম উদ্দিন আহমেদ শিমুল, সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি আদিবা আনজুম মিতা, ফেরদৌসি ইসলাম জেসি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মঈনুদ্দিন মণ্ডল, সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুন নেসা তালুকদার, সাবেক এমপি কাজী আবদুল ওয়াদুদ দারা, আখতার জাহান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে ৩৬০ জন কাউন্সিলরসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষ হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/০৮ডিসেম্বর/আরআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :