কোয়ারেন্টাইন না মানায় করোনায় আক্রান্ত পরিবারের সবাই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০২০, ১০:০৭
ফাইল ফটো

লন্ডন থেকে ফিরেছিলেন এক যুবক। এসময় যুবকের সংস্পর্শে আসেন তার বোন। পরে ওই যুবকের শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে ওই যুবতীকে ২৮ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়। কিন্তু তিনি কোয়ারেন্টাইন না মেনে নিজের ছেলে মেয়ে ও পরিবারের সবার সঙ্গে মিশেছেন। যার ফলশ্রুতিতে পরিবারের তিন শিশুসহ সকলে এখন করোনায় আক্রান্ত।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। আক্রান্তদের মধ্যে ২৭ বছরের যুবতী ছাড়াও তার ন’মাস ও ছ’বছরের দুই মেয়ে এবং ৪৫ বছরের এক মহিলা ও তার ১১ বছরের ছেলে আছেন।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে চললে যুবতীর থেকে একসঙ্গে এতজন করোনায় আক্রান্ত হতেন না। যুবতীর এক ভাই ১৬ মার্চ লন্ডন থেকে দিল্লিতে ফেরেন। তাকে নিতে যুবতী ছাড়াও পরিবারের আরও কয়েক জন দিল্লি যান। তারপরে বিলেতফেরত ভাইয়ের শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। চিকিৎসকেরা ওই যুবতীকে ২৮ দিন কোয়রান্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন। কিন্তু যুবতী এবং তার পাঁচ সঙ্গী গ্রামের বাড়িতে ফেরেন।

বাবা-মা ছাড়া মোট সাত জন সরাসরি ওই যুবতীর সংস্পর্শে এসেছিলেন। তার কাছাকাছি এসেছিলেন আরও ছ’জন।

কলকাতার স্বাস্থ্য ভবনের খবর, আক্রান্তদের সংস্পর্শে কারা এসেছেন, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় তাদের খোঁজে নেমে পড়েছেন স্বাস্থ্য দফতরের ‘ট্র্যাকিং টিম’। সংস্পর্শের তালিকায় অসংখ্য নাম উঠে আসতে পারে।

ঢাকা টাইমস/২৮মার্চ/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :