ঈদের দিনে সড়কে প্রাণ গেল ৯ বাইক আরোহীর

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ২৫ মে ২০২০, ২৩:০১ | প্রকাশিত : ২৫ মে ২০২০, ২২:৫৬
ফাইল ছবি

ঈদুল ফিতরের দিনে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। রাজশাহী, ময়মনসিংহ, চুয়াডাঙ্গা, মাদারীপুর, কিশোরগঞ্জ, মাগুরা ও পিরোজপুরে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে রাজশাহী ও ময়মনসিংহে দুইজন করে এবং অন্য পাঁচ জেলায় একজন করে মারা যান। তাদের সবাই বাইক আরোহী ছিলেন। তাদের অনেকে ঈদের দিন ভ্রমণ করার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। ঢাকাটাইমসের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

রাজশাহী: ঈদের দিন আনন্দ ভ্রমণে বের হয়ে রাজশাহীতে দুই বাইকার সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন। সোমবার রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও বাগমারা উপজেলায় আলাদা দুটি দুর্ঘটনায় তারা নিহত হন।

নিহতরা হলেন- গোদাগাড়ী উপজেলার বিদিরপুর গ্রামের খাইরুল ইসলামের ছেলে রিয়াদ (১৮) এবং মোহনপুর উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে রাশেদ (২০)। দুজনই মোটরসাইকেলের চালক ছিলেন।

জানা গেছে, দুপুরের পর বন্ধুদের সাথে মোটরসাইকেল নিয়ে আনন্দ ভ্রমণে বের হন রিয়াদ। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়কে গোদাগাড়ীর সোনাদীঘি এলাকায় একটি অটোরিকশার সঙ্গে ধাক্কায় রিয়াদ ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। এ সময় তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে মোহনপুরের রাশেদও একটি মোটরসাইকেলে দুই বন্ধুকে নিয়ে ঘুরতে বের হন। বাগমারা উপজেলার দৌলতপুর এলাকায় গিয়ে তারা দুর্ঘটনায় পড়েন। এতে ঘটনাস্থলেই রাশেদের মৃত্যু হয়। আহত হন দুর্গাপুর গ্রামের ইন্তাজ শাহ’র ছেলে মিজান (২০) এবং একই গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে মেহরাব (১৯)।

এদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় মেহরাবকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর মিজান আছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। নিহত রাশেদ মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এমাজ খানের ভাতিজা। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছে। এ দুই তরুণের মৃত্যুতে আনন্দের ঈদ তাদের পরিবারে বিষাদের রূপ নিয়েছে।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান ও গোদাগাড়ী থানার ওসি খাইরুল ইসলাম জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় এ দুই তরুণের মৃত্যুর ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা করা হবে।

ময়মনসিংহ: জেলার গফরগাঁওয়ে গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় দুই যুবক নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও এক যুবক।

নিহতরা হলেন কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার বড়বাড়ি গ্রামের অনীক (২২) ও রিয়াদ (২১)। অপর গুরুতর আহত যুবকের নাম আশিক (২২)। তার বাড়িও একই গ্রামে।

সোমবার দুপুর পৌন তিনটার দিকে উপজেলার পাগলা থানাধীন টাংগাব ইউনিয়নের টাংগাব গ্রামের ডাকবাংলো বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গফরগাঁওয়ের খান বাহাদুর ইসমাইল সড়কের টাংগাব গ্রামের ডাকবাংলো বাজারের কাছে টাংগাব ফাজিল মাদরাসা মোড়ে দ্রুতগতির একটি মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এ সময় ঘটনাস্থলে অনীক ও রিয়াদ নামে দুই যুবক মারা যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় আশিক নামে অন্য যুবককে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে।

পাগলা থানার ওসি শাহীনুজ্জামান খান জানান, ওই তিন যুবক একটি মোটরসাইকেলে করে গফরগাঁওয়ের টোক-ডাকবাংলো বাজার এলাকার বানার নদের বানার সেতু পেরিয়ে ঘুরতে এসেছিল। পরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলটির ধাক্কা লাগলে ঘটনাস্থলেই দুই যুবক নিহত হয়।

(শিবচর) মাদারীপুর: মাদারীপুরের শিবচরে মোটরবাইক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মো. ডালিম শেখ নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার বিকালে শিবচরের বন্দরখোলা এলাকার দৌলতপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অহিদুজ্জামান জানায়, পদ্মাসেতু ভ্রমণ করে বাড়ি ফেরার পথে বন্দোরখোলা এলাকার দৌলতপুরে হাইওয়ে সড়কের রেলিংয়ের সঙ্গে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ধাক্কা লাগে। এ সময় ঘটনাস্থলেই এক যুবকের মৃত্যু হয়। আরোহী আরও দুই যুবককে পাঁচ্চর রয়েল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হতাহতদের বিস্তারিত পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

চুয়াডাঙ্গা: বেলা তিনটার দিকে জেলার আলমডাঙ্গায় দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে রাশেদুজ্জামান টোকন (২৮) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন মোটরসাইকেল আরোহী চাচাতো ভাই রিফাত ও শামিম। নিহত রাশেদুজ্জামান উপজেলার সাহেবনগর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবীর দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মাগুরা: জেলার শ্রীপুর উপজেলার দুরাননগর এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে আঘাত পেয়ে মো. জিল্লুর রহমান নামে এক আরোহী নিহত হয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে এ দুঘটনা ঘটে। জিল্লুর রহমান মহেশপুর গ্রামের মোনোয়ার হোসেনের ছেলে।

শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুবর রহমান দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঈদের দিন ফাঁকা রাস্তায় মোটরসাইকেলটি দ্রুত গতিতে চালাচ্ছিল। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে প্রচণ্ড জোরে আঘাত পায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কিশোরগঞ্জ: দুপুরের দিকে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে জয় নামে এক আরোহী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। পাকুন্দিয়া উপজেলার বটতলা ও ড্রেইনের ঘাট ব্রিজের মাঝে দুটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হলে জয়সহ ছয়জন আহত হন। পরে বিকালে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার (জয়) মৃত্যু হয়।

জয় নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার নয়াপাড়া খিদিরপুর গ্রামের ইদু মিয়ার ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করে পাকুন্দিয়া উপজেলার আহুতিয়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিরোজপুর: জেলার নাজিরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাইকের পেছনে থাকা মো. সাইফুল ইসলাম হৃদয় (১০) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার চৌঠাইমহল বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন রিক অফিসের সামনের সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হৃদয় উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের চৌঠাইমহল গ্রামের বাচ্চু হাওলাদারের ছেলে এবং স্থানীয় চৌঠাইমহল বারো হাজার কওমিয়া মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিবার সূত্র জানায়, ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে বিকালে ৬/৭ জন বন্ধু মিলে পৃথক মোটরসাইকেলে করে ঘুরছিলো হৃদয়। পিরোজপুর-নাজিরপুর সড়কের বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন রিক অফিসের সামনের সড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি মোটরসাইকেল রাস্তার পাশের একটি গাছে ধাক্কা খায়। এতে ওই মোটরসাইকেলের পেছনে থাকা হৃদয় মাথায় আঘাত পায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢাকাটাইমস/২৫মে/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :