মানুষ ও দেশের কল্যাণে ‘দাগনভূঞা প্রবাসী ফোরাম’

মোহাম্মদ হানিফ, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে
 | প্রকাশিত : ১০ জুলাই ২০২০, ১৯:৫১

মহামারি করোনার প্রভাবে চরম অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মুখে পুরো বিশ্ব। ইতোমধ্যে চাকরি হারিয়েছেন কোটি কোটি মানুষ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাস করা লক্ষাধিক প্রবাসী বাংলাদেশিও সেই তালিকায় আছেন। তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অনেক উদ্যোগ হাতে নিয়েছে ‘দাগনভূঞা প্রবাসী ফোরাম’।

এছাড়া এ ফোরামের অন্যতম উদ্দেশ্য হলো, এলাকার গরিব, অসহায় মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের পড়া লেখা চালিয়ে যেতে সহায়তা করা এবং বৃত্তিসহ বিনামূল্যে বই বিতরণ। এলাকার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর সেবায় এগিয়ে এসে উপজেলার সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়ন করে দেশের মাঝে দাগনভূঞাকে একটি মডেল উপজেলায় পরিণত করাসহ বিশ্বজুড়ে দেশের সংস্কৃতি বিকাশে কাজ করে যাওয়া।

‘বিশ্ব জুড়ে ভ্রাতৃত্বের সেতুবন্ধন’ এই শ্লোগানকে বুকে ধারণ করে এ বছরের ৬ মে যাত্রা শুরু করেছে সংগঠনটি। সামাজিক এই সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা লন্ডন প্রবাসী আবুল কাশেম। গরিব শিশু-কিশোরদের জন্য শিক্ষার ব্যবস্থা এবং তাদের খেলাধুলার পাশাপাশি সু-স্বাস্থ্য নিশ্চিত কল্পে বিনামূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করাসহ সকল প্রকার প্রাকৃতিক দুর্যোগে অসহায় ও ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাঁড়ানোর প্রত্যয় নিয়ে পথ চলা শুরু করেছে এই ফোরামটি। ফোরামের লক্ষ্য ও উদ্দেশের সঙ্গে সহমত পোষণ করে ফেসবুক পেজ থেকে অতি অল্প সময়ে সাড়া মিলেছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা ফেনী জেলার দাগনভূঞা উপজেলার ছয় হাজারেরও বেশি প্রবাসীর।

এই কার্যক্রমকে গতিশীল করার লক্ষ্যে পৃথিবীর যে যে দেশে দাগনভূঞার প্রবাসীরা আছেন তাদের নিয়ে কমিটি গঠনের কাজ শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে ওমান, কাতার, কুয়েত, সৌদি আরব, নিউইয়র্ক, মালয়েশিয়া, পর্তুগাল, দুবাইসহ বেশ কয়েকটি দেশে ফোরামের ২১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য দেশগুলোর কমিটিও খুব শিগগিরই ঘোষণা করা হবে। এদিকে অনলাইনে প্রতিটি দেশের কমিটির সঙ্গে আলোচনাসভা ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত আছে বলে জানান প্রতিষ্ঠাতা আবুল কাশেম।

তিনি বলেন, ‘আমরা প্রবাসীরা কিন্তু সামাজিকভাবে অবহেলিত। অন্যদিকে করোনার কারণে চাকরি হারিয়ে পরিবার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে প্রবাসীরা। হঠাৎ চিন্তায় আসে, এই দুঃসময়ে দলমত-নির্বিশেষে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে আমাদের উপজেলার সকল প্রবাসীদের নিয়ে একটি প্লাটফরম তৈরি করা প্রয়োজন। দেশভিত্তিক কমিটির মাধ্যমে কর্মহীন প্রবাসীদের চাকরির ব্যবস্থা এবং সেই পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতার পাশাপাশি গ্রামের অসহায়, দরিদ্র ও দুস্থদের পাশে দাঁড়ানোর জন্যই এমন উদ্যোগ। এর জন্য অসংখ্য মানুষের সাড়া পাব তা কল্পনাও করতে পারিনি।’

তিনি জানান, এ ফোরামের উদ্দেশ্য উপজেলার সকল প্রবাসীদের মধ্যে একটি সুসম্পর্ক গড়ে তোলা এবং তাদের নিয়ে সময়োপযোগী ও কল্যাণকর কর্মসূচি হাতে নেওয়া। এলাকার আর্থ-সামাজিক অবস্থার কাঙ্খিত পরিবর্তন সাধনের জন্য আত্ননির্ভরশীল, সুখী ও সমৃদ্ধশালী অবক্ষয়মুক্ত সমাজ গঠন করা। বিশেষ করে পিছিয়ে পড়া সমাজের অনগ্রসর নারী-পুরুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থার ইতিবাচক পরিবর্তনে সমন্বিত প্রচেষ্টায় উন্নয়ন কর্মসূচি হলো এই ফোরামের লক্ষ্য। তবে এটা সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক।

(ঢাকাটাইমস/১০জুলাই/পিএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :