পাকিস্তানি মুদ্রার রেকর্ড ভাঙা পতন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:৫০ | প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৫৯

পাকিস্তানি মুদ্রার রেকর্ড পতন ঘটল। অর্থনৈতিক দুর্দশা সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন ইমরান খান। হুহু করে পড়েছে পাকিস্তানের অর্থনীতি। ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে মার্কিন ডলার প্রতি পাকিস্তানি রুপির মূল্য ছিল ১২৩ রুপি। সেখান থেকে পাক রুপির দাম পড়তে পড়তে, ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে ডলার প্রতি পাকিস্তানি রুপির মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৭৭!

পাকিস্তানের ইতিহাসে এর আগে কোনওদিন রুপির দাম এতটা পড়েনি, এটাই সর্বনিম্ন। আর পাকিস্তানের এই ব্যাপক অর্থনৈতিক দুর্দশার পিছনে উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে খোদ ইমরান খান সরকারের বেশ কিছু পদক্ষেপ, বা পদক্ষেপের অভাব এবং সেইসঙ্গে কয়েকটি আর্থিক সিদ্ধান্তের।

পাকিস্তানের মিনি বাজেটের মধ্যে বাজেটের সংশোধন এবং ব্যয় হ্রাস অন্তর্ভুক্ত করা হবে। তবে তা সেই দেশের বাসিন্দাদের অর্থনৈতিক পরিত্রাণ দেওয়ার জন্য যথেষ্ট নয়। প্রধানমন্ত্রীর অর্থ ও রাজস্ব উপদেষ্টা শওকত তারিনও স্বীকার করেছেন যে মুদ্রাস্ফীতি এবং মুদ্রার অবমূল্যায়নের কারণে বাজার নিয়ে এখন কোনও অনুমান করা যাচ্ছে না।

মার্কেট অ্যাক্টররা এই পরিস্থিতির সুযোগ নিতে চেষ্টা করছেন ঠিকই, কিন্তু, সরকারেরই দায় বর্তায় তাদের নিয়ন্ত্রণে রাখা। যা করতে ইমরান সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ বলে জানিয়েছেন পাক অর্থনীতিবিদরা।

পাকিস্তান সরকারে সেই দেশের আয়কর সংগ্রহ ৩২ শতাংশ বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করেছে। এটা পাকিস্তানের অর্থনীতির জন্য একটি ইতিবাচক লক্ষণ বলে মনে করা হলেও, এতে করে সেই দেশের অর্থনীতির পুরো চিত্রটা ধরা পড়ছে না বলে জানিয়েছেন পাক অর্থনীতিবিদরা।

প্রতিবেদন অনুসারে, যারা মুদ্রাস্ফীতি হ্রাস এবং জীবিকার সুযোগের উন্নতির প্রত্যাশা করছিলেন তাদের হতাশই হতে হবে। নির্মাণ শিল্পে পাকিস্তান কিছুটা উন্নতি করেছে, যা রিয়েল-এস্টেট টাইকুনদের উৎসাহিত করতে পারে। তবে, রিয়েল-এস্টেট ক্ষেত্রে উন্নতি সাধারণ মানুষের কোনও উপকারে লাগবে না। তারা সামান্য ঘর ভাড়া দিতেই হিমশিম খাচ্ছেন।

(ঢাকাটাইমস/৮ডিসেম্বর/আরজেড/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :