জ্ঞান-বিজ্ঞানের অনুসন্ধানের প্রয়াসই সমাজের বড় শক্তি: ড. মশিউর

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:০৭

নতুন জ্ঞান অনুসন্ধানের প্রচেষ্টা বর্তমান সমাজের সবচেয়ে বড় শক্তি বলে মনে করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান। তিনি বলেন, ‘এই সমাজে যারা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী রয়েছেন তারাও চান তাদের সন্তান বা আগামীর প্রজন্ম বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত হউক। সমাজের আলোকিত মানুষ হউক। তারাই এই সমাজের শেকড়। শিক্ষকদের আত্মমর্যাদা এবং সম্মান বর্তমান সমাজে স্বীকৃত। একারণেই এই সমাজের মানুষের জন্য যদি কিছু করার থাকে, কোনো পেশার মানুষের যদি কিছু করার থাকে- সেটি সবচেয়ে বেশি করবার সুযোগ শিক্ষকদের।’

শনিবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ এডুকেশন ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (সিইডিপি) এর ১৭তম ব্যাচের বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক প্রশিক্ষণে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য।

প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য প্রফেসর ড. মশিউর রহমান বলেন, ‘আমাদের পৃথক জাতিরাষ্ট্র যখন সৃষ্টি হয়, সেই সময়েই আমাদের মূলনীতি নির্ধারিত হয়েছে। এ সময়ে একটি বিষয় আমরা শিখেছি- যেকোনো বৈরিতায়, প্রতিবন্ধকতায় বাংলাদেশের মানুষ যথাযথ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে- সেটি প্রযুক্তি হউক, বিজ্ঞান ভাবনা হউক, শিক্ষার নতুন দর্শন হউক- আমাদের জনগোষ্ঠী যে নতুনকে গ্রহণ করতে পারে সেই দক্ষতা বাঙালির অপার। এই দক্ষতার শক্তিই আমাদের নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও নতুন স্বপ্ন দেখায়।

ড. মশিউর বলেন, আমরা এক ধরনের আশাবাদের মধ্য দিয়ে এগুতে থাকি। আমি গভীরভাবে বিশ্বাস করি- এই সময়টাকে পাল্টে দিয়ে আগামীর প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের গড়ে তোলাই আমাদের মূল কাজ। সেটি করবার জন্যই অনলাইনে শিক্ষক প্রশিক্ষণ। এর সঙ্গে প্যাডাগোজি এবং আইসিটি সংযুক্ত করা হয়েছে।

‘বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক প্রশিক্ষণের গভীরতা আমাদের শিক্ষার্থীদের গভীরভাবে আলোকিত করবে। আজকে আপনারা যারা ২৮ দিন প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে স্ব স্ব কর্মক্ষেত্রে যাবেন, সেখানে নতুন যা কিছু শিখেছেন তার সঙ্গে আরও নতুনকে সংযোজন করে শিক্ষার্থীদের জ্ঞানের পথে নেয়ার কাজটি দক্ষতার সঙ্গে করবেন। শিক্ষার্থীদের অগ্রসর মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার মুখ্য কাজটি আপনাদেরই।’বলেন উপাচার্য।

জুম অ্যাপের মাধ্যমে দেশব্যাপী হিসাববিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান, বাংলা ও বোটানি বিভাগের ১৫৯ জন শিক্ষক এই প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। বিষয়ভিত্তিক এই শিক্ষক প্রশিক্ষণ কার্যক্রমটি অনলাইনে গত ২৬ ডিসেম্বর শুরু হয়। ২৮ দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণের সমাপনী দিন ছিল আজ ২২ জানুয়ারি।

স্নাতকোত্তর শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা কেন্দ্রের ডিন প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর আবদুস সালাম হাওলাদার, সিইডিপির প্রকল্প পরিচালক (পিডি) ড. এ. কে. এম. মুখলেছুর রহমান। কোর্স উপদেষ্টা হিসেবে যুক্ত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. ভীষ্মদেব চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মনিরুল ইসলাম খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানি বিভাগের অধ্যাপক ড. রাখহরি সরকার ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের নির্বাহী পরিচালক প্রফেসর ড. মাহমুদা আক্তার।

এছাড়া সমাপনী অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন শিক্ষক প্রশিক্ষণ দপ্তরের পরিচালক মো. হাছানুর রহমান।–বিজ্ঞপ্তি

(ঢাকাটাইমস/২৩জানুয়ারি/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :