খানসামায় কবরস্থান দখলের অভিযোগ, কবর খননে বাধা

খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ মে ২০২২, ১৫:১৭

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার আলোকঝাড়ি ইউনিয়নের শুশুলী ও দোয়ানী কাশিমনগর মৌজার পাকা সড়ক সংলগ্ন একটি কবরস্থান দখল করে দোকান ঘর নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। সেই কবরস্থানে কবর খনন করতেও বাধা দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শুশুলী ও দোয়ানী কাশিমনগর মোজায় বৃটিশ রেকর্ডিয় খাস খতিয়ানে ওই এলাকার মুসলিম জনসাধারণের জন্য কবরস্থান হিসেবে রেকর্ড হয়েছিল। এর পর থেকে এই এলাকার লোকজন মারা গেলে সে স্থানে কবর দিত। কিন্তু সেই কবরস্থানটি দখল করে একই এলাকার আবদুল বাসেদ ও বাদশা দোকান ঘর নির্মাণ করে দখলে নেন। এমনকি চলতি বছরের ৪ এপ্রিল শুশুলী গ্রামের সহিদুল ইসলাম নামে এক যুবক মারা গেলে তার কবর খনন শুরু করলে দখলদাররা বাধা দেন। সেই কবরস্থানটি দখলমুক্ত করতে ওই এলাকার পক্ষে জিয়া ইসলাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।

শুশুলী গ্রামের ভ্যানচালক রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা ছোট বেলা থেকে দেখে আসতেছি এই কবরস্থানে এজারউদ্দীন মাস্টার পাড়া ও সর্দারপাড়ার লোকজন মারা গেলে কবর দেওয়া হয়। কিছুদিন আগে এজারউদ্দীন মাস্টার পাড়ার সহিদুল ইসলাম (৩৫) মারা গেলে দখলদাররা তাকে এখানে মাটি দিতে দেয় নাই। অভিযোগকারী জিয়াউর রহমান বলেন, বাসেদ শুধু কবরস্থান দখলই করে নি তিনি সেই কবরস্থানের জায়গা স্থানীয় আলতাফের কাছে বিক্রি করেছে। দীর্ঘদিন হতে ব্যবহৃত কবরস্থানে যাতে অত্র এলাকার মুসলমানদের কবর দিতে বাধা প্রদান ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে এজন্য তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে কবরস্থানটি দখলমুক্ত করার জোর দাবি জানাচ্ছি।

অভিযুক্ত আ. বাসেদ বলেন, এই জায়গাটি আমরা দুই ভাই ভূমি অফিস থেকে বরাদ্দ পেয়েছি। এখানে কোনো অন্য মানুষের কবর দেওয়া হত না। শুধু আমাদের পারিবারিক কবরস্থান ছিল।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মারুফ হাসান বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। কবরস্থান দখলের ঘটনা ঘটলে তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/২৩মে/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :