পদ্মা সেতুর দুই থানায় যেভাবে চলছে কার্যক্রম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৬ জুন ২০২২, ২১:৩০ | প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০২২, ২১:০৩

উদ্বোধনের চার দিন আগে পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তে দুটি থানার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে পদ্মা সেতু উত্তর থানা আর অপর প্রান্ত শরীয়তপুরের জাজিরায় পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা।

উদ্বোধনের পরদিনই দক্ষিণ থানা পুলিশ জেলপালানো এক আসামি গ্রেপ্তার করে। আবু বক্কর সিদ্দিক নামে এই আসামিই ২০২০ সালের ৬ আগস্ট মই বেয়ে কাশিমপুর কারাগার থেকে পালিয়ে যান। তিনি একটি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত। এছাড়া এই থানায় রাগ করে বাড়ি থেকে মেয়ে চলে যাওয়ার বিষয়ে স্থানীয় এক ব্যক্তি একটি জিডি করেছেন।

আর উত্তর থানায় এখন পর্যন্ত একটি মাদকের মামলা আর যন্ত্রাংশ হারানোর জিডি হয়েছে। মাদক মামলার আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ এই দুটি থানা ভবন নির্মাণ করে দিয়েছে। এতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা। সংযোগ সড়কের টোলপ্লাজার পাশে থানা ভবনের অবকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে।

সেতুর দুই প্রান্তেই দুটি করে ইউনিয়ন এই থানা দুটির আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। লৌহজংয়ের মাওয়া প্রান্তের থানার আওতায় মেদিনীমণ্ডল ও কুমারভোগ ইউনিয়ন। জাজিরা পয়েন্টের থানার আওতায় থাকবে পূর্ব নাওডোবা ও পশ্চিম নাওডোবা ইউনিয়ন।

পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা সূত্রে জানা গেছে, পলাতক আসামি আবু বক্কর ছাড়া এখন পর্যন্ত আর কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। রাগ করে বাড়ি থেকে মেয়ে চলে যাওয়ায় স্থানীয় একজন সাধারণ ডায়েরি করেছেন। বিষয়টি পুলিশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।

এদিকে পদ্মা সেতু উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন ঢাকাটাইমসকে জানান, উদ্বোধনের পর থেকে এখন পর্যন্ত একটি মাদকের মামলা হয়েছে। সেই মামলায় একজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া গাড়ির যন্ত্রাংশ খোয়া যাওয়ার ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করছে।

শনিবার প্রমত্তা পদ্মার বুকে বাংলাদেশের গৌরবের প্রতীক হয়ে দাঁড়ানো সেতুর দ্বার খুলে দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে এই সেতু উদ্বোধন করেন।

রবিবার ভোর থেকে সাধারণের জন্য উম্মুক্ত করে দেওয়া হয় দীর্ঘ চ্যালেঞ্জ আর প্রতিকূলতা পেরিয়ে নির্মিত দেশের যোগাযোগ খাতের সবচেয়ে বড় এই অবকাঠামো।

২০২১ সালে পদ্মা সেতুতে পিচ ঢালাইয়ের কাজ শুরু হয়। গত ৪ জুন সেতুর ল্যাম্পপোস্টে প্রথমবারের মতো জ্বলে বাতি। ৯ জুন পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে সংসদে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলাকে রাজধানীর সঙ্গে সরাসরি যুক্ত করার পাশাপাশি পুরো দেশের সামনে পদ্মা সেতু খুলে দিয়েছে নতুন সম্ভাবনার দুয়ার।

(ঢাকাটাইমস/২৬মে/এসএস/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :