কুয়াকাটায় রেস্তোরাঁ মালিকদের ধর্মঘট

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০২২, ২০:১৬ | প্রকাশিত : ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৯:৪৪

ঘনঘন ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করার কারণে ক্ষুব্দ হয়ে খাবার হোটেল মালিক সংগঠন এর প্রতিবাদ জানিয়ে বুধবার সকাল থেকে খাবার হোটেল রেস্তোরাঁ অনিদিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেয় পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটায়। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন আগত পর্যটকরা। কোন প্রকার আগাম নোটিশ ছাড়াই খাবার হোটেল বন্ধ করে দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পর্যটকরা।

কুয়াকাখাবার হোটেল মালিকদের অভিযোগ এক মাসের মধ্যে তাদের হোটেলগুলোতে তিন থেকে চারবার জরিমানা করা হয়েছে। রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেওয়া ছাড়া তাদের অন্য কোন উপায় ছিল না। বুধবার ভোর থেকে রেস্তোরা বন্ধ রেখে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ঘোষণা দিয়েছেন খাবার হোটেল মালিক সংগঠন।

এদিকে প্রশাসন জানিয়েছে, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে তাদের তাগিদ দিলেও একই কাজ বারবার করছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় ক্ষুব্ধ কুয়াকাটা খাবার হোটেল মালিক সমিতি সংগঠনের সভাপতি সেলিম মুন্সী মঙ্গলবার রাত ১০টায় স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়ে বুধবার সকাল থেকে খাবার হোটেল বন্ধ করে দেয়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদিন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাবার হোটেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার নামে মোটা অংকের টাকা জরিমানা করে যাচ্ছে। একই হোটেলকে একাধিকবার এই জরিমানার আওতায় নেওয়া হয়েছে। মোবাইল কোর্টের নামে আমাদের হয়রানি করা হচ্ছে। আমরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। তাই কুয়াকাটার সকল খাবার হোটেল মালিক একত্রিত হয়ে আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

মঙ্গলবার সকালে ৩০ সদস্যের একটি বহরে ঢাকার মুন্সীগঞ্জ থেকে কুয়াকাটা বেড়াতে আসা পর্যটকরা বলেন, সকাল থেকে কিছুই খাওয়া হয়নি। সাথে পরিবারের শিশুসহ বয়স্ক লোকজন রয়েছে, তাই এ সমস্যার দ্রুত সমাধান হওয়া জরুরি।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত শহিদুল হক বলেন, পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটায় রেস্তোরাঁ মালিকদের আকস্মিক ধর্মঘট ডাকা অযৌক্তিক। পর্যটকদের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত খাবার পরিবেশনের গুরুত্বে কুয়াকাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। জরিমানা করার পরও খাবার হোটেল মালিকরা পর্যটকদের পচাবাসি খাবার পরিবেশন করছে। খাবার হোটেল মালিকরা তাদের যৌক্তিক দাবি থাকলে জেলা প্রশাসককে জানাতে পারেন।

এ ব্যাপারে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন বলেন, বিষয়টি আমি দেখছি।

(ঢাকাটাইমস/১৭আগস্ট/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :