চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে মাঠে ৬৮ প্রার্থী, হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস

চট্টগ্রাম ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:১৪

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের বাছাই-প্রত্যাহার ও প্রতীক বরাদ্দ শেষে চূড়ান্ত লড়াইয়ে মাঠে আছেন ৬৮ জন প্রার্থী। সোমবার প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দের পর চট্টগ্রামে মাঠ পর্যায়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জমে উঠেছে জেলা পরিষদ নির্বাচন।

বিশেষ করে সংরক্ষিত ও সাধারণ ওয়ার্ডে প্রার্থীদের তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ লড়াইয়ে প্রথমবারের মতো চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচন উপজেলা থেকে গ্রাম পর্যন্ত সরগরম হয়ে উঠেছে।

সোমবার প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে প্রার্থীদের মাঝে। প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই শুরু হয়েছে প্রার্থীদের প্রচারণা। এখন ভোটযুদ্ধে মাঠ আছেন ৬৮ জন প্রার্থী।

চেয়ারম্যান পদে প্রতিতদ্বন্দ্বিতায় আছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নারায়ণ রক্ষিত। সংরক্ষিত ওয়ার্ডে সদস্য পদে ২২ জন ও সাধারণ ওয়ার্ডে সদস্য পদে ৪৪ জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এই বিষয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. কামরুল আলম ঢাকা টাইমসকে জানান, সাধারণ সদস্য পদে ৪৮ জন প্রার্থীর মধ্যে ৪ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। চেয়ারম্যান পদে ২জন এবং সংরক্ষিত সদস্য পদে ২২ জন প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মোট ভোটার ও কেন্দ্র সংখ্যা:

আগামী ১৭ অক্টোবর চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর এবং ১৫ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান, সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বার এবং পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরসহ মোট ২ হাজার ৭৩০জন ভোটার জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট প্রদান করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ হাজার ৯৩ জন এবং মহিলা ভোটার ৬৩৭ জন। ১৫ উপজেলায় ১৫ কেন্দ্রের ৩০ বুথে ভোটাররা ভোট প্রদান করবেন।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত সাধারণ ওয়ার্ডের ৪ সদস্য:

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৪ উপজেলা থেকে সাধারণ ওয়ার্ডের ৪জন সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিতরা হলেন- চট্টগ্রাম-১ (মীরসরাই) ওয়ার্ডে প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম-৬ (রাউজান) ওয়ার্ডে কাজী আবদুল ওহার, চট্ট্রগাম-৭ (রাঙ্গুনীয়া) ওয়ার্ডে আবুল কাশেম চিশতী এবং চট্টগ্রাম-১২ (আনোয়ারা ও চসিক) ওয়ার্ডে এসএম আলমগীর চৌধুরী।

সংরক্ষিত ওয়ার্ডের চূড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন:

সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ২২ জন প্রার্থী এখন প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন। প্রার্থীরা হলেন-১ নম্বর ওয়ার্ডে জাহান আরা নাজনীন, ইয়াসমিন আক্তার কাকলী, রওশন আরা বেগম, ইসমত আরা সুলতানা ও নার্গিস আকতার। ২ নম্বর ওয়ার্ডে অ্যাডভোকেট উম্মে হাবিবা, দিলোয়ারা ইউসুফ, জুবাইদা ছরওয়ার চৌধুরী নিপা। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে তাহমিনা আকতার চৌধুরী, জগদা চৌধুরী, মোস্তফা রাহিলা চৌধুরী। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে মোছাম্মৎ দিলু আরা বেগম, দিলুয়ারা বেগম, রেহেনা বেগম (ফেরদৌস) চৌধুরী, সাদেজা বেগম, মোছাম্মৎ ফারহানা আফরীন জিনিয়া। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে শাহিদা আকতার জাহান, দিলোয়ারা বেগম, রুখসানা আকতার, শিকু আরা বেগম, তসলিমা আকতার, সুরাইয়া খানম।

সাধারণ ওয়ার্ডের চূড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন:

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে সাধারণ ওয়ার্ডে ৪জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পর এখন মাঠে আছেন ৪৪ প্রার্থী। প্রার্থীরা হলেন- ২ নম্বর ওয়ার্ডে (সীতাকুণ্ড) আ ম ম দিলসাদ ও মো. শওকতুল আলম। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে (সন্দ্বীপ) মো. নুরুন্নবী (ভুট্টো), মুহাম্মদ সিদ্দিকুর রহমান, মো. রফিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, সাহেদ সরওয়ার শামীম, মো. আলাউদ্দিন, মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন, কামরুল হাসান (আলাল)।

৪ নম্বর ওয়ার্ডে (ফটিকছড়ি) মো. আমান উল্লা খান চৌধুরী ও আখতার উদ্দিন মাহমুদ। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে (হাটহাজারী ও চসিক আংশিক) মো. আবু আলম, গোলাম মোস্তফা, জাফর আহমেদ, মোহাম্মদ আলমগীর, মো. নুরুল আবছার, এইচএম আলী আবরাহা, মো. মনজুর হোসেন চৌধুরী, মো. এজাহার মিয়া, মো. সেলিম উদ্দিন। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে (বোয়ালখালী ও চসিক আংশিক) মোহাম্মদ ইউনুছ ও বোরহান উদ্দিন মো. এমরান।

৯ নম্বর ওয়ার্ডে (কর্ণফুলী ও চসিক আংশিক) ইসলাম আহমদ, অধ্যাপক মো. রাশেদুল হাসান। ১০ নম্বর ওয়ার্ডে (পটিয়া) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, দেবব্রত দাশ। ১১ নম্বর ওয়ার্ডে (চন্দনাইশ) উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য আবু আহমেদ চৌধুরী এবং মো. শেখ টিপু চৌধুরী।

১৩ নম্বর ওয়ার্ডে (বাঁশখালী) কল্যাণ বড়ুয়া, সাহাদত হোসেন চৌধুরী, মোহাম্মদ আবদুল আজিজ চৌধুরী, মো. হামিদ উল্লাহ, মো. নুর হোছাইন, এম জিল্লুল করিম শরীফি, মোজাম্মেল হক সিকদার, মো. নুরুল মোস্তফা সিকদার, মোহাম্মদ আলমগীর করিব, মো. খালেকুজ্জামান। ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে (সাতকানিয়া) মনির আহমদ, গোলাম ফেরদৌস, আবদুল আলিম। ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে (লোহাগাড়া) আনোয়ার কামাল, মোহাম্মদ এরফানুল করিম চৌধুরী।

যে ১২ প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন:

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, চেয়ারম্যান পদে এক প্রার্থীসহ ১২ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। চেয়ারম্যান পদে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন উত্তর জেলা কৃষক লীগ নেতা মো. ফয়েজুল ইসলাম। সংরক্ষিত ১ নম্বর ওয়ার্ডে দিলোয়ারা বেগম, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে তিষণ ভট্টাচার্য ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডে সুমী দে।

সাধারণ সদস্য পদে ৮ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। তারা হলেন- ১ নম্বর ওয়ার্ডে মিহির কান্তি নাগ ও কালু কুমার দে। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মাহফুজুর রহমান ও নাদিম শাহ আলমগীর। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে আবু বক্কর সিদ্দিকী। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে মো. আবুল মোকারম, মনসুর আহমদ ও মিজানুর রহমান।

(ঢাকাটাইমস/২৭সেপ্টেম্বর/এসএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :