মাছ ধরতে নদীতে বিষ!

শাহাব উদ্দিন, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০১৬, ১৯:৪২ | প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০১৬, ১৯:৩১

বান্দরবানের লামায় মাতামুহুরী নদীতে বিষ ছিটিয়ে মরা মাছ ধরার সঙ্গে একটি চক্র দীর্ঘ দিন ধরেই জড়িত। ‘মাছের জোয়ার’ এসেছে নাম দিয়ে চক্রটি মাছ ধরে তা বাজারে বিক্রি করে আসছে অনেকটা প্রকাশ্যেই। প্রতিবছরই এই দুষ্কর্মটি করে যাচ্ছে চক্রটি।

আজ শুক্রবারও বেলা ১১টায় মাতামুহুরী নদীর লামা পৌরসভার তেলির কুম এলাকায় সেই পুরনো কায়দায় নদীতে বিষ ঢেলে ভেসে ওঠা মরা মাছ ধরার কাজে ব্যস্ত ছিল সেই চক্রটি। এক পর্যায়ে  স্থানীয় বাসিন্দারাও মাছ ধরায় নেমে পড়ে।
শুক্রবার সকালে সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, লামা পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের তেলির কুম এলাকায় বহু ধরনের মাছ ভেসে উঠেছে। স্থানীয়রা  জাল, মশারি, ওচা নিয়ে ভাসমান মাছ সংগ্রহ করছে।
নদীতে কে বিষ প্রয়োগ করেছে? জানতে চাইলে মাছ ধরতে আসা কয়েক ব্যক্তি ঢাকাটাইমসকে বলেন, বিষ কে বা কারা দিয়েছে তা জানি না, নদীতে ‘মাছের জোয়ার’ এসেছে তাই আমরা মাছ ধরছে এসেছি।
নাম প্রকাশ না করা শর্তে এক ব্যক্তি বলেন, বিষ প্রয়োগের দুই এক দিন আগে নদীতে গাছের ডাল ফেলে ঝোঁপের মতো বানিয়ে তার পর বিষ দেয়া হয়, যাতে করে মাছ মরে ঐ ঝোঁপের সঙ্গে আটকে থাকে।
এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে লামা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) জিয়া উদ্দিন বলেন, গোটা বিষয়টি আমরা নজরদারির মধ্যে রেখেছি। যারা বিষ প্রয়োগ করছে তাদেরকে চিহিৃত করার চেষ্টা চলছে। কেউ যদি আমাদেরকে সহযোগিতা করেন তাহলে আমরা তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে পারবো দ্রুত। তবে আমরা এ নিয়ে কাজ করছি।
দীর্ঘ দিন ধরেই চক্রটি মাতামুহুরী নদীতে  বিষ প্রয়োগে মাছ নিধন করায় মাছের প্রজন্ম ধ্বংসসহ প্রজনন নষ্ট  হয়ে যাওয়ায় মাতামুহুরী নদীতে আগের মত এখন আর মাছ পাওয়া যায়না।
মৎস সম্পসারণ আইন-১৯৫০ এর ৫ ধারা অনুযায়ী নদীতে বিষ প্রয়োগ করে বা বিদুৎতায়িত করে মাছ ধরা দন্ডনীয় অপরাধ।
(ঢাকাটাইমস/ ২৫ নভেম্বর/ প্রতিনিধি/ এআর/ঘ.)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত