দামি ব্র্যান্ডের স্টিকার লাগিয়ে নকল টিভি বিক্রি

শওকত আলী, চাঁদপুর
 | প্রকাশিত : ১০ জুন ২০১৭, ১৬:৩০

চাঁদপুর সদর থেকে শুরু করে বিভিন্ন উপজেলায় ইলেক্ট্রিক সামগ্রীর দোকানগুলোতে নিম্নমানের চাইনিজ টিভির উপর বিভিন্ন নামিদামি ব্রান্ডের স্টিকার সেটে বিক্রি করা হচ্ছে। উঠেছে গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা করার অভিযোগ। কিছু অসৎ ব্যবসায়ী অতিরিক্ত মুনাফার জন্য সাধারণ গ্রাহকের সাথে এ ধরনের প্রতারণা করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। সাধারণ মানুষ এসব স্টিকার দেখে আসল টিভি ভেবে এবং দামে কিছুটা কমে পাওয়ায় নগদ টাকায় কিনে নিয়ে প্রতারিত হচ্ছে।

চাঁদপুর সদর, বাবুরহাট, মুন্সির হাট, মতলব উত্তর, মতলব দক্ষিণ, হাইমচর, ফরিদগঞ্জ, শাহরাস্তি, কচুয়া, হাজীগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় ব্যাঙের ছাতার মত গজিয়ে ওঠা অসংখ্য ইলেকট্রনিক্স পণ্য বিক্রির দোকানে অবাধে বিক্রি হচ্ছে স্টিকার লাগানো নকল টিভি।

বহু আগে উৎপাদিত পিকচার টিউব এবং অনেক সময় পুরানো টিভির পিকচার টিউব খুলে নামমাত্র মূল্যে বিক্রি করে চীনের কিছু কোম্পানি। বাংলাদেশের ব্যাবসায়ীরা এসব পিকচার টিউব কিনে অন্যান্য যন্ত্রাংশ জুড়ে টিভি বানিয়ে সেগুলোর উপর স্টিকার বসিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে।

একটু ঘুরতেই দেখা যায়- প্রতিটি দোকানের টিভির উপর স্যামসাং, এলজি, সনিসহ বিভিন্ন বিখ্যাত ব্র্যান্ডের স্টিকার লাগানো।

কয়েকজন বিক্রেতার সাথে আলাপ করলে তারা জানান, তাদের সব পণ্যই আসল এবং এসব টিভি উন্নতমানের মালয়েশিয়ান পিকচারটিউব দিয়ে তৈরি। তাছাড়া এগুলো দামেও কম।
অবশ্য কোনো কোনো দোকানি স্বীকার করেন, এসব টিভির যন্ত্রাংশ চীন থেকে আমদানি করা হয়েছে। তারপর বাংলাদেশে এনে ফিটিং করা হয়েছে।

একটি শো-রুমের ম্যানেজারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ‘এসব টিভি চীন থেকে আনা হয়। এগুলো নিম্নমানের টিভি। এর উপর অন্যায়ভাবে বিভিন্ন ব্রান্ডের লোগো লাগিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে। এতে করে গ্রাহকরা প্রতারিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এক কোম্পানির লোগো কোনভাবেই অন্য কোম্পানির পন্যের উপর বসাতে পারে না। এটা মারাত্মক অন্যায়।’

অন্য এক শো-রুমের ম্যানেজারের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, কোম্পানির মনোনীত ডিলার বা শোরুম ছাড়া, আর সব দোকান অন্যায়ভাবে নিম্নমানের টিভিতে বিভিন্ন ব্রান্ডের লোগো বসিয়ে বিক্রি করে। এটা গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই না।

তিনি আরো জানান, প্রথমদিকে এসব টিভি সেটের পর্দায় ছবির মান খুব একটা খারাপ থাকে না। কিন্তু কিছুদিন না যেতেই ঘটে বিপত্তি। সারানো উপায়ও নেই কারণ বিক্রয়োত্তর সেবা দেয়ার মতন ব্যবস্থা এখানকার কোনো দোকানে নেই।

আরেক বিক্রেতা জানালেন, যারা বিভিন্ন ব্রান্ডের লোগো লাগিয়ে টিভি বিক্রি করছে তারা ক্রেতাদের টিভির সাথে কোন সেই ব্রান্ডের লোগো প্রিন্ট করা আছে এমন কার্টন বা বক্স দিতে পারে না। কারণ দামি ব্রান্ডের শো রুমের প্রতিটি পণ্যের সাথে নির্দিষ্ট বক্স দেয়া থাকে এবং সেই বক্সের গায়ে কোম্পানির লোগো, সিরিয়াল নং, মডেল নাম্বার এবং যাবতীয় কাগজপত্র দেয়া থাকে। এ ক্ষেত্রে অসাধু ক্রেতারা নানা অজুহাতে বিক্রিত পণ্যটি অন্য বক্সে ভরে ক্রেতাকে গছিয়ে দেন।

এ বিষয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের  সংগঠন ক্যাবের চাঁদপুর জেলা সভাপতি জীবন কানাই চক্রবর্তী জানান, যারা অন্যায়ভাবে বিভিন্ন ব্রান্ডের লোগো লাগিয়ে টিভি বিক্রি করছে তারা ভোক্তাদের সাথে প্রতারণা করছে। এধরনের অসাধু বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া জরুরি।

সচেতন ভোক্তারা বলছেন, ‘মানুষের সাথে যারা এভাবে প্রতারণা করছে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে প্রশাসনিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া অতি জরুরি।’

(ঢাকাটাইমস/১০জুন/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত