আবার উত্তপ্ত দার্জিলিং

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৭, ১৮:৩৫

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পার্বত্য এলাকা দার্জিলিংয়ে স্থানীয় রাজনৈতিক দল গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রধান বিমল গুরুংয়ের কার্যালয়ে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। সেখান থেকে বিস্ফোরকসহ প্রচুর ধারালো অস্ত্রশস্ত্র, টাকা ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবারের এই তল্লাশি অভিযানকে ঘিরে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পাহাড়। পুলিশের ওপর হামলা চালানোর পাশাপাশি পাহাড়ের বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলনে নেমেছেন মোর্চা সমর্থকেরা। দার্জিলিং পাশাপাশি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কার্শিয়াং, কালিমপং। কার্শিয়াং-এ গ্রেপ্তার করা হয় মোর্চা নেত্রী করুণা গুরুং-কে। কালিমপং-এ আটক করা হয় মোর্চার তিন কর্মীকে।  

পুলিশ সূত্রে খবর, আজ সকাল আটটার দিকে দার্জিলিংয়ে বিমল গুরুং-এর পাতলেবাসের অফিসে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে উদ্ধার হয় তীর-ধনুক, ভোজালি, কাটারি, ছুরি, কুড়াল, হাঁসুয়া, কোদাল জাতীয় প্রচুর ধারালো অস্ত্রশস্ত্র। সঙ্গে মেলে বিস্ফোরক বোঝাই বাক্স এবং বস্তাবন্দি বিপুল পরিমাণ টাকা। এ ছাড়া বেশ কয়েকটি মোবাইল ও ওয়্যারলেস সেটও উদ্ধার করা হয়েছে। বিমলের বাড়ি লাগোয়া ওই অফিসে যখন পুলিশ অভিযান চালায়, তখন তিনি সেখানে ছিলেন না বলেই পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ যখন ওই অভিযান শেষে পাতলেবাস থেকে নেমে আসছে, তখনই তাদের ওপর ইটবৃষ্টি শুরু হয়। চারদিক থেকে ঘিরে ফেলা হয় তাদের। বেশ কয়েক জন পুলিশকর্মী গুরুতর জখম হন। এমনকী, সংবাদমাধ্যমের গাড়িতেও আগুন ধরিয়ে দেয় মোর্চা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। লাঠিচার্জও করা হয়। এ দিন দুপুর পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি বলেই পুলিশ সূত্রে খবর।

মোর্চার সহকারি সাধারণ সম্পাদক বিনয় তামাঙ্গের দাবি, ‘পুলিশ নির্যাতন চালাচ্ছে। তার প্রতিবাদেই এই বনধ ডাকা হয়েছে। স্থানীয় একটি তিরন্দাজি প্রতিযোগিতার জন্য ওই অফিসে তীর-ধনুক রাখা হয়েছিল। সেগুলিকেই উদ্ধার করে পুলিশ অস্ত্রশস্ত্র হিসাবে দেখাচ্ছে।’

রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা গৌতম দেব বলেন, ‘এ ধরনের বনধ বেআইনি। তা আইনি পথেই প্রতিরোধ করা হবে। এ বিষয়ে রাজ্য সরকার ও প্রশাসন যা যা করণীয় সেই ব্যবস্থা নেবে।’

পশ্চিমবঙ্গ সরকার পশ্চিমবঙ্গের সব বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা ভাষাকে পড়ানোর নির্দেশ দিলে ক্ষুব্ধ হয় দার্জিলিংয়ের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। এরই প্রতিবাদে তারা সোচ্চার হয়। শুরু হয় সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের বনধ। দাবি ওঠে পৃথক গোর্খাল্যান্ড রাজ্যের।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

(ঢাকাটাইমস/১৫জুন/এসআই)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর