অনুমতি ছাড়া পুঁজিবাজার নিয়ে কথা বললে ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:০১ | প্রকাশিত : ০৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৫০

অনুমতি ছাড়া পুঁজিবাজার নিয়ে কথা বললে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার হেলাল উদ্দিন নিজামী। তিনি বলেন, ‘আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই বিএসইসির অনুমতি ছাড়া পুঁজিবাজার নিয়ে কেউ কোনো মন্তব্য করবেন না। যদি কেউ মন্তব্য করেন তাহলে তাকে শাস্তি পেতে হবে।’

বৃহস্পতিবার বিকালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে করপোরেট গর্ভরন্যান্স কোড বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জসমূহ শীর্ষক এক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘বাজারে কেউ গুজব ছড়াবেন না। গুজবনির্ভর বাজার কখন নির্ভরশীল হতে পারে না। বিভিন্ন ব্রোকারেজ হাউজ থেকে অনেক সময় গুজবের কথা শোনা যায়। এদিকে কান দেবেন না। কোম্পানির ফান্ডমেন্টাল দেখে বিনিয়োগ করেন।’

আগামী এক বছরের মধ্যে ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টি অ্যাক্ট কার্যকর হবে বলে সেমিনারে জানান বিএসইসি কমিশনার। বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি যাতে দীর্ঘমেয়াদী হতে পারে, ব্যাংক নির্ভর যেন না হয় সে ব্যাপারে কাজ করছে কমিশন।

অনলাইন পত্রিকা অর্থসূচক আয়োজিত সেমিনারের হেলাল উদ্দিন বলেন, করপোরেট গর্ভন্যান্স কোড হলে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সুরক্ষা পাবে। বিনিয়োগকারীর সুরক্ষা আমাদের প্রধান ইস্যু। আলোচনা সমালোচনা যাই হোক না কেন আমরা ক্ষুদ্র বিনিয়োগবারীদের পাশে আছি।

তিনি বলেন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ও ব্রোকারেজ হাউজের কেউ কেউ বিএসইসির কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন আইপিও কয়েক মাসের জন্য বন্ধ রাখতে। এটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আমি বলতে চাই এমন সাহস করবেন না। বাজারকে অস্থিতিশীল করতে এমন প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে।

বিএসইসি কমিশনার বলেন, টেকসই অর্থনীতি, এসডিজি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পুঁজিবাজারকে বেছে নিতে হবে। পুঁজিবাজারকে বাদ দিয়ে অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব না। তিনি বলেন, প্রাইমারি শেয়ারে যারা বিনিয়োগ করেন তারাই আমাদের প্রাণ। তাদের স্বার্থ রক্ষা করার দায়িত্ব কমিশনের।

হেলাল উদ্দিন আরও বলেন, যেসব কোম্পানি ১০ বছর ধরে ব্যবসা করে দেশের টাকা বাইরে নিয়ে যাচ্ছে অথচ তালিকাভুক্ত হচ্ছে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অর্থসূচকের সম্পাদক জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন বার্জার পেইন্টস্ বাংলাদেশের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা আব্দুল খালেক ও লাফার্জ হোলসিম বাংলাদেশের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইনস্টিটিউট অব চাটার্ড সেক্রেটারিজ বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সানাউল্লাহ।

ঢাকাটাইমস/০৪এপ্রিল/আরএ/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অর্থনীতি এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :