প্রকাশক দীপন হত্যায় তিনজনের সাক্ষ্যগ্রহণ

আদালত প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:২৭

প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় জাগৃতি প্রকাশনীর ম্যানেজার আলাউদ্দিন মিয়াসহ তিনজন সাক্ষ্য দিয়েছেন ট্রাইব্যুনালে।

মঙ্গলবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান ওই সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণের পর আগামী ২৯ ডিসেম্বর পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করেছেন।

অপর দুই সাক্ষী হলেন, আজিজ সুপার মার্কেট কমিটির সভাপতি নাজমুল আহসান এবং উৎস প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী মোস্তফা সেলিম।

মামলাটিতে এর আগে গত ১ ডিসেম্বর দীপনের স্ত্রী রাজিয়া রহমান সাক্ষ্য দেন। এনিয়ে মামলাটিতে চারজনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হলো।

মামলার আসামি আটজন। যাদের মধ্যে মইনুল হাসান শামীম ওরফে সামির ওরফে ইমরান, আবদুর সবুর সামাদ ওরফে সুজন ওরফে রাজু ওরফে স্বাদ, খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল ওরফে জিসান, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন ওরফে শাহরিয়ার ও শেখ আবদুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ওরফে জায়েদ ওরফে জাবেদ ওরফে আবু ওমায়ের কারাগারে রয়েছেন। মঙ্গলবার সাক্ষ্য গ্রহণের সময় তাদের ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়। অপর দুই আসামি জঙ্গিগোষ্ঠী আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সামরিক শাখার প্রধান বরখাস্তকৃত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়া ও আকরাম হোসেন ওরফে হাসিব ওরফে আবির ওরফে আদনান ওরফে আবদুুল্লাহ পলাতক রয়েছেন।

মামলায় গত ১৩ অক্টোবর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু হয়। এর আগে এ মামলায় গত বছর ১৫ নভেম্বর আটজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হকের ছেলে দীপনকে ২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর দুপুরের পর শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে জাগৃতি প্রকাশনীর কার্যালয়ে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। একই দিন কাছাকাছি সময়ে লালমাটিয়ায় শুদ্ধস্বর প্রকাশনীর কার্যালয়ে ঢুকে এর স্বত্বাধিকারী আহমেদুর রশীদ টুটুল, লেখক সুদীপ কুমার ওরফে রণদীপম বসু ও প্রকৌশলী আবদুর রহমানকে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে। চার্জশিটে বলা হয়, দীপনকে হত্যার নির্দেশদাতা, মূল পরিকল্পনা ও নেতৃত্বে ছিলেন পলাতক সৈয়দ জিয়াউল হক। আসামি খাইরুল, আবদুস সবুর ও মইনুলকে তিনি হত্যাকাণ্ডের আগে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১০ডিসেম্বর/আরজেড/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :