চেয়ারম্যানসহ ইউনাইটেডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৪ জুন ২০২০, ০৭:৪৫ | প্রকাশিত : ০৪ জুন ২০২০, ০৭:৪১

রাজধানীর গুলশানের অভিজাত ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে পুড়ে পাঁচ রোগী মৃত্যুর ঘটনায় মামলা হয়েছে। অবহেলাজনিত কারণেই আগুনের ঘটনা ঘটেছিল বলে মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে। হাসপাতালটির ঊর্ধ্বতন সকলের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন নিহতের এক স্বজন।

বুধবার রাতে মামলা করার বিষয়টি ঢাকাটাইমসকে নিশ্চিত করেছেন গুলশান বিভাগের ডিসি সুদীপ কুমার চক্রবর্তী। তিনি বলেন, মামলাটি করেছেন নিহত অ্যান্থনি ভের্নন পলের মেয়ের জামাই রোনাল্ড মিকি গোমেজ। মামলায় ইউনাইটেড হাসপাতালের চেয়ারম্যান, এমডি, সিইও, পরিচালক, করোনা ইউনিটে সেসময় কর্মরত ডাক্তার-নার্স, সেফটি ও সিকিউরিটি কর্মকর্তাদের আসামি করা হয়েছে।

গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, আগুনের পেছনে ইউনাইটেড হাসপাতালের অবহেলাকে দোষারোপ করে 'অবহেলাজনিত মৃত্যুর' অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়েছে।

গত ২৭ মে ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আগুনের ঘটনায় পাঁচজন দগ্ধ হয়ে মারা যান। এই ঘটনায় গুলশান থানায় অপমৃত্যু মামলা করে ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

পরদিন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম হাসপাতালটি পরিদর্শন যান। তখন তিনি সাংবাদিকদের বলেন, 'ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের সকল ব্যবস্থা সিটি কর্পোরেশন থেকে করা হবে। এরই মধ্যে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ- সিআইডি আলামত সংগ্রহ করছে। তদন্তে কারো গাফলতি পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

আগুনে পুড়ে মৃত ব্যক্তিদের পরিবারের কেউ থানায় অভিযোগ না করায় চারজনের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করে পুলিশ। আর একজনের করোনা পজিটিভ থাকায় তার দাফন-কাফনের ব্যবস্থা করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

নিহতরা হলেন- মোহাম্মদ মাহবুব, মনির হোসেন, ভেরন অ্যান্থনি পল, খোদেজা বেগম ও রিয়াজ উল আলম।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল এসি থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল। তবে এখন পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের গঠন করা চার সদস্যের কমিটি তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়নি। তবে অগ্নিনির্বাপকের যেসব যন্ত্রপাতি ছিল তা মেয়াদউত্তীর্ণ ছিল বলো জানায় সংস্থাটি।

(ঢাকাটাইমস/৪জুন/এসএস/এমআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :