বড় চার লক্ষ্য বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের

রহমান আজিজ
| আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১৪:৪৯ | প্রকাশিত : ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১১:৫৩

ক্ষুদ্র, মাঝারি শিল্প ও নারী উদ্যোক্তা তৈরি, আমানতকারীদের আস্থা ধরে রাখা, ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা মানুষকে ব্যাংক সেবার আওতায় আনা এবং উপশাখাকে গুরুত্ব দিয়ে ব্যাংক খাতে শক্ত অবস্থান তৈরি করতে চায় বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড। একটি শাখা নিয়ে কার্যক্রম শুরু করলেও চলতি বছর ১০টি শাখা খোলাসহ বেশকিছু পরিকল্পনা নিয়ে এগোতে চায় প্রায় এক মাস আগে যাত্রা শুরু করা ব্যাংকটি।

ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) দায়িত্বে আছেন তারিক মোর্শেদ। ৩০ বছরেরও বেশি সময় আর্থিক খাতে যিনি দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছেন। সদ্য কার্যক্রমে আসা ব্যাংকটির লক্ষ্য, পরিকল্পনা, কার্যক্রমসহ বেশকিছু বিষয় নিয়ে বৃহস্পতিবার ঢাকাটাইমসের সঙ্গে কথা হয় তারিক মোর্শেদের। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন ঢাকাটাইমসের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রহমান আজিজ।

গত ১০ মার্চ যাত্রা শুরুর পর কেমন সাড়া পেয়েছেন জানতে চাইলে তারিক মোর্শেদ জানান, ‘বেশ ভালো। আমানত তো প্রতিদিনই কমবেশি হচ্ছে। তবে এ পর্যন্ত প্রায় ৩০০ কোটির মত আমানত এসেছে ব্যাংকে।’

কোন খাতে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এসএমই ও ম্যাক্রোফাইন্স্যান্সে গুরুত্ব দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু করোনা ও লকডাউনে সেটি কাজে আসছে না। লকডাউনের পর আশা করি বাস্তবায়ন করতে পারবো।

একটি শাখা খোলার মাধ্যমে আপনাদের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ বছর কয়টি শাখা খোলার পরিকল্পনা আছে জানতে চাইলে ব্যাংকটির এমডি জানান, ‘এ বছর আরও দশটি শাখা খোলার অনুমোদন বাংলাদেশ ব্যাংক দিয়েছে। এছাড়া দুটি এডি শাখা লাইসেন্সের অনুমোদন ইতোমধ্যে পেয়েছি। ১:১ অর্থাৎ একটি শহর ও একটি গ্রামে করা হবে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিষয়ে জানতে চাইলে তারিক মোর্শেদ বলেন, আমরা বেশি উপ-শাখা করবো। উপ-শাখার মাধ্যমে এসএমই ও নারী উদ্যোক্তাদের প্রতি বেশি গুরুত্ব দেবো। পাশাপাশি নন-ফান্ডেড এর প্রতি গুরুত্ব দেয়া হবে।

বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের মূললক্ষ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমানতকারীরা আস্থাহীনতায় ভুগছে। আমাদের মূললক্ষ্য হবে আমানতকারীদের আস্থা ব্যাংকে ফিরিয়ে নিয়ে আসা। পাশাপাশি আমানতকারীর অর্থ সঠিক বিনিয়োগের মাধ্যমে সঠিক খাতে বিনিয়োগ করা। যাতে করে এটাকে রিপেমেন্ট ও রিকোভারি দেয়া সম্ভব হয়। এক্ষেত্রে করর্পোরেটের পাশাপাশি এসএমই, মাইক্রোক্রেডিট, রিটেইল এর ওপর বেশি জোর দেবো। এবং যাদের ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট আছে কিন্তু ক্রেডিট লাইনের সঙ্গে সংযুক্ত নয় তাদেরকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় নিয়ে আসা আমাদের মূল লক্ষ্য।

দীর্ঘদিন অপেক্ষায় থাকার পর গত ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪০২ তম পর্ষদ সভায় বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের অনুমোদন দেয়া হয়। অনুমোদন পাওয়ার পর গত ১০ মার্চ দেশের ৬০তম তফসিলি ব্যাংক হিসেবে যাত্রা শুরু করা ব্যাংকটি।

ঢাকাটাইমস/১৭এপ্রিল/আরএ/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :